২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কিশোরগঞ্জে ডাক্তারের অবহেলায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

-

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য কমল্পেক্সে ডাক্তারের চিকিৎসা অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। কালীপুর চৌধুরী পাড়া গ্রামের সুলতান আলী ছেলে মুদি ব্যবসাইয়ী সুমন মিয়া (৩০) গত বুধবার নিজ দোকানের বারান্দা ঝাড়– দেয়ার সময় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়। উপস্থিত লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে ৪টা ১৩ মিনিটে। কিন্তু ৫টা ১২ মিনিট পর্যন্ত জরুরী বিভাগে কোন ডাক্তার না থাকায় চিকিৎসা অবহেলায় রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেন স্বজনরা।
মৃতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সুমন মিয়া সাড়ে ৩টা দিকে তার মুদি দোকানের বারান্দা ঝাড়ু দেয়ার সময় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়। এসময় তাকে তড়িঘড়ি করে কিশোরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমল্পেক্সে নিয়ে আসা হয় ৪টা ১৩ মিনিটে। কিন্তু ৫টা ১২মিনিট পর্যন্ত খোঁজাখুজি করে কোন ডাক্তারের দেখা পাওয়া যায়নি। জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত ডাক্তার সুজাত শরীফ জেমস ৫টা ১৫মিনিট হাসপাতালে এসে রুগীকে মৃত্যু ঘোষনা করেন।
কর্তব্যরত ডাক্তার সুজাত শরীফ জেমসের সাথে কথা বললে তিনি বলেন এ হাসপাতালে মাত্র দুজন ডাক্তার।২টা ৩০মিনিটের পড় কোন ডাক্তার জরুরী বিভাগে থাকে না।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা (প.প) কর্মকর্তা মেজবাউল হকের সাথে কথা বলে তিনি বলেন আমি এইমুহুর্তে নীলফামারীতে রয়েছি আগামিকালকে অফিসে গিয়ে সিসি ক্যামেরার রিপোট দেখে কর্তব্যরত ডাক্তারের বিরোদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ