Naya Diganta

অপুকে শাকিবের ডিভোর্স লেটার : যা বললেন বর্ষা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

০৬ ডিসেম্বর ২০১৭,বুধবার, ১১:৩৫


সন্তানদের কোলে নিয়ে অপু বিশ্বাস ও বর্ষা

সন্তানদের কোলে নিয়ে অপু বিশ্বাস ও বর্ষা

চিত্রনায়ক শাকিব খান তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স লেটার পাঠানোর খবরটি এখন রীতিমতো ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’তে পরিণত হয়েছে। বিভিন্ন মাধ্যমে পক্ষে-বিপক্ষে নানা আলোচনা চলছে। বিষয়টি নাড়া দিয়েছে ঢাকাই চলচ্চিত্রের আরেক আলোচিত নায়িকা বর্ষাকে। নায়ক অনন্ত জলিলের স্ত্রী বর্ষা বিষয়টি ভালোভাবে নিচ্ছেন না। তিনি অপুর জন্য মর্মাহত।

বর্ষা তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে মঙ্গলবার রাতে এ বিষয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘আমি একটু মর্মাহত হলাম সাকিব-অপুর সংসার ভেঙ্গে যাওয়ায়। কারণ এতগুলো সফল সিনেমার জুটি তারা। ভেবে ছিলাম তাদের নিজেদের মাঝে যেটুকুই মনোমালিন্য হয়েছিলো, তা নিজেরাই মিটিয়ে নিয়ে সুখের সংসার করবে। কিন্তু না, তার বিপরীত হলো।

সাকিব খান হঠাৎ অপু বিশ্বাসের নিকট ডির্ভোস লেটার পাঠিয়ে তাদের ৯ বছরের সংসারকে ভেঙ্গে দিলো। এতদিনের ভালোবাসার সম্পর্ককে এত সহজেই ছিন্ন করে দিলো, যা আসলেই মেনে নেয়া কষ্টকর। বিশেষ করে খারাপ লাগছে অপু বিশ্বাসের জন্য, কারণ অপু নিজের পরিবার ও ধর্মকে দূরে ঠেলে সাকিবের কাছে এসেছিলো। সাকিবের উপর ভরসা রেখেই সব ছেড়ে সংসার করেছিলো। কিন্তু সব কিছুই সে নিমেষেই শেষ করে দিলো তালাকনামা পাঠিয়ে।

আমাদের একটা কথা মাথায় রাখা উচিত, আমরা যারা সেলিব্রেটি আছি, সাধারন মানুষ তাদেরকে আর্দশ মানেন। আর সেই আর্দশের আমরা যদি কিছু দিন পর পর এ রকম অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্ম দেই, তাহলে ভক্তরা কি শিখবে? কি ফলো করবে। আমাদের মত সেলিব্রেটিদের উচিত একটু শাবানা ম্যাম, শাবনাজ-নাঈম, রাজ্জাক আঙ্কেলের দাম্পত্ত জীবন অনুসরণ করা। কারণ তারা একেকজন কিংবদন্তি হয়েও তাদের সংসার, স্বামী, সন্তান নিয়ে সুখের সংসার করে গিয়েছেন।

আমি আশা করি সাকিব-অপু তাদের পুরনো দিনের স্মৃতিগুলো স্বরণ করে সব কিছু ভুলে গিয়ে ছোট্ট সন্তানের কথা চিন্তা করে, তার উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা ভেবে, নতুন করে সুখের সংসার শুরু করবে।’

শাকিব এখন অন্য গ্রহের বাসিন্দা : অপু
বিয়েবিচ্ছেদ নিয়ে প্রকাশ্যে কথা বলবেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। এ নিয়ে দু-এক দিনের মধ্যেই সংবাদ সম্মেলন করবেন তিনি। অপু বলেন, ‘তালাকনামার যে নোটিশ আমার ঠিকানায় পাঠানোর কথা বিভিন্ন সংবাদ থেকে জেনেছি, সেটি হাতে পাওয়ার পর আইনজীবীর সাথে পরামর্শ করে সবার সামনে কথা বলব।’

অপু বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে লুকোচুরির কিছু নেই, যা সত্য তা সবার জানা প্রয়োজন।’

সংবাদমাধ্যমে আসা খবরে কাবিননামা নিয়ে ভুল তথ্য দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে অপু বলেন, ‘আমাদের বিয়ের কাবিননামায় টাকার অঙ্ক (দেনমোহর বাবদ) উল্লেখ আছে ১ কোটি ৭ লাখ টাকা। এটাকে কেউ যেন বিভ্রান্ত না করে।’ উল্লেখ্য, সোমবার দুপুরে শাকিব-অপুর বিয়েবিচ্ছেদের খবর গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর শাকিবের আইনজীবী গণমাধ্যমে দেনমোহর ৭ লাখ টাকা উল্লেখ করেছিলেন। অপু বলেন, শাকিব এভাবে তালাক নোটিশ না পাঠিয়ে পানিঘোলা না করে নিজে সুন্দরভাবে আমার সাথে কথা বলে সংবাদ সম্মেলন করে সবাইকে বিষয়টি জানিয়ে দিতে পারত।’

অপু বলেন, ‘আমি চেষ্টা করেছি সংসার করতে। তবে সংসারের প্রতি শাকিবের কোনো মনোযোগ ছিল না। সে এখন অন্য গ্রহের বাসিন্দা। এ সত্ত্বেও আমি চাইব শাকিব যেন ক্যারিয়ারে আরো বেশি সফলতা পায়।’

২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব-অপু বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন। তবে বিয়ের খবর ৯ বছর ধরে গোপন রেখেছিলেন তারা। চলতি বছরের ১০ এপ্রিল দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে এসে, এক রকম হাটে হাঁড়ি ভেঙে দেন অপু। এত দিন অপু বিশ্বাস গোপনে আগলে রেখেছিলেন শাকিব খানের ঔরসজাত সন্তানকে। কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শাকিব-অপুর ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের। সে সময় অপু বিশ্বাসের সিজারও করা হয়।

এ খবর প্রকাশের পর থেকেই শাকিবের সাথে অপুর মান-অভিমান চলছিল।

এ দিকে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ছিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের প্রথম জন্মদিন। জন্মদিনের দাওয়াতপত্রে অপু বিশ্বাস ও জয়ের ছবি থাকলেও শাকিব খানের কোনো ছবি ছিল না। তখনো শাকিব-অপুর সম্পর্কের চরম টানাপড়েনের বিষয়টি আলোচনায় আসে। এমনকি ছেলের জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যাননি শাকিব! যদিও শাকিব তার ছেলের সাথে দিনের বড় একটা অংশ কাটান সেদিন। এর পর থেকেই তাদের সম্পর্কের টানাপড়েন দিনকে দিন বাড়ছিল।

শাকিব খান গত ৩০ অক্টোবর ‘চালবাজ’ ছবির শুটিং শেষ করে ভারত থেকে ঢাকায় ফেরেন। এরপর ৪ নভেম্বর এফডিসিতে ‘আমি নেতা হব’ ছবির শুটিংয়ে অংশ নেন। আর ৫ নভেম্বর সকালের ফ্লাইটে থাইল্যান্ড যান তিনি। থাইল্যান্ড যাওয়ার পরই গুঞ্জন শুরু হয় অপুকে তালাক দিচ্ছেন শাকিব। ২০ নভেম্বরের দিকে দেশে ফেরেন তিনি।

ওই দিনই সন্তানকে বাসায় রেখে চিকিৎসার জন্য ভারতে যান অপু। ২০০৬ সালে পরিচালক এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে প্রথম জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করেন শাকিব-অপু।

Logo

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,    
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫