Naya Diganta

ফেব্রুয়ারির মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটিতে নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৩ ডিসেম্বর ২০১৭,রবিবার, ১৮:৩০


ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে আগামী ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্বাচনের উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

আনিসুল হকের মৃত্যুতে মেয়র পদ শূন্য হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার আইনী বাধ্যবাধকতা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

তিনি জানান, এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন হাতে পেলে নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সাথে ইউএনডিপির প্রতিনিধি দলের বৈঠক শেষে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
সকাল ১১টা থেকে সিইসির সাথে বৈঠক করে ইউএনডিপির তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল। এতে চার কমিশনার ও ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন।

এসময় ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, নারী ভোটারদের কিভাবে আরো সচেতন করা যায়, নির্বাচন প্রক্রিয়াকে আরো আধুনিকায়ন করা যায়- এসব বিষয়ে কারিগরি সহযোগীতা করার বিষয়ে ইউএনডিপির প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব বলেন, স্থানীয় সরকারের সব পর্যায়ের নির্বাচন আছে তার সবই এখন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হবে। ডিএনসিসিতেও প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সাম্প্রতিক সময়ে নতুন ১৮টি ওয়ার্ড ডিএনসিসির সাথে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেখানে এখনই কাউন্সিলর পদে নির্বাচন হবে কি না তা বলা যাচ্ছে না। কারণ বিষয়টি জটিল। ভোটার তালিকা সংযুক্ত করা হয়েছে। এখন সিডি নির্মাণের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এটি হলে কমিশনে উপস্থাপন করা হবে। পরে কমিশন এবিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসির সহকারী সচিব রাজীব আহসান বলেন, মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারির পর ভোটের প্রক্রিয়া শুরু হবে। ৩০ নভেম্বর থেকে ৯০ দিন, অর্থাৎ ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে মেয়র পদে উপ নির্বাচন শেষ করতে হবে। কমিশন সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে অন্তত ৪৫ দিন হাতে রেখে তফসিল ঘোষণা করতে পারে। উপ নির্বাচনে মেয়র পদে নতুন যিনি আসবেন, তিনি মেয়াদের বাকি অংশটুকু দায়িত্ব পালন করবেন।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ভোট হয়। আওয়ামী লীগের সমর্থনে ওই নির্বাচনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন আনিসুল হক। প্রায় দুই বছর ধরে ওই দায়িত্ব পালনের মধ্যেই চলতি বছর জুলাইয়ে যুক্তরাজ্যে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিসে আক্রান্ত আনিসুল।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩০ নভেম্বর তার মৃত্যু হয়। স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন অনুযায়ী সিটি করপোরেশনের প্রথম সভা থেকে পাঁচ বছর মেয়াদ থাকে শপথ নেয়া জনপ্রতিনিধিদের।

এদিকে ডিএনসিসি মেয়রের পদ শূন্য ঘোষণা করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। চলতি সপ্তাহের মধ্যেই এটি করা হতে পারে বলে আজ রোববার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মিজবাহ উদ্দীন জানিয়েছেন।

মিজবাহ উদ্দীন বলেন, মন্ত্রণালয়ের আইন অনুযায়ী এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। এমন পরস্থিতিতে আসন শূন্য ঘোষণা করার একটি আইনসম্মত প্রক্রিয়া এবং বিধান রয়েছে। শূন্য ঘোষণা করার পর এ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করবে সরকার এবং নির্বাচন কমিশন।

Logo

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,    
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫