Naya Diganta

গাসিক কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে এবার রাস্তা দখল

টঙ্গী সংবাদদাতা

১২ জানুয়ারি ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:২৯


গাজীপুর সিটি করপোরেশনের একটি পুরনো রাস্তার অপমৃত্যু ঘটতে যাচ্ছে। সংশ্লিøষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে রাস্তাটি দখল করে নিচ্ছেন জনৈক প্রভাবশালী। অপর দিকে রাস্তা জবর দখলকারীর রোষানলে পড়ে গুরুতর আহত ওয়ার্ড কাউন্সিলর এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে ােভ বিরাজ করছে।
স্থানীয়রা জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কড়মতলা খ্রিষ্টান হাসপাতালের গেট থেকে এপিএস ফ্যাক্টরি পর্যন্ত রাস্তাটি আগে জতীন্দ্র, গোপাল, হরি চারণ বাবু ও মনার বাড়ি হয়ে কামারগাঁও মন্দির হয়ে বিশ্বরোড পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। পরে নগরায়নের ফলে রাস্তাটির গুরুত্ব বেড়ে যাওয়ায় খ্রিষ্টান হাসপাতাল গেট থেকে এপিএস ফ্যাক্টরি পর্যন্ত রাস্তাটি পাকাকরণের প্রকল্প হাতে নেয় গাসিক কর্তৃপ। প্রকল্পটি শুরুর আগেই রাস্তার দুই পাশে একই মালিকের জমি থাকার অজুহাতে স্থানীয় এপিএস কারখানা কর্তৃপ ও একজন ব্যবসায়ী রাস্তাটি বন্ধ করে তাদের জমিতে বাউন্ডারি দেয়ার চেষ্টা করেন। পরে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও এলাকাবাসীর বাধার মুখে এপিএস কর্তৃপ রাস্তার জায়গা উন্মুক্ত রেখেই বাউন্ডারি দেন।
অপর দিকে ঢাকার একজন গাড়ি ব্যবসায়ী ওই এলাকায় আলোচিত রাস্তার দুই পাশের জমি কিনে রাস্তাটি বন্ধ করে দেন। তিনি রাস্তার ওপর অবকাঠামো নির্মাণ করলে সিটি করপোরেশনের প থেকে তাকে একাধিকবার নোটিশ দেয়া হয়। অবশেষে তিনি নোটিশের কোনো জবাব না দেয়ায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের টঙ্গী অঞ্চলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে গত ২৯ ডিসেম্বর ওই স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এ ঘটনায় ওই জমির নতুন মালিকপ ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুলতান উদ্দিনকে প্রধান আসামি করে এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে গত বুধবার জয়দেবপুর থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় রাস্তাটির দুই পাশের বাড়ির মালিকদেরও আসামি করা হয়। তাদের মধ্যে ৭০ বছরের বৃদ্ধ আমির হোসেনসহ রুশু বেগম ও সুফিয়া বেগম নামে দুই মহিলাকেও আসামি করা হয়েছে। মামলাটির সূত্র ধরে ২৯ ডিসেম্বর রাতেই ৪২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাবেক পূবাইল ইউপির দীর্ঘ এক যুগের চেয়ারম্যান সুলতান উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারের সময় তিনি গুরুতর আহত হন। তার ডান পা ভেঙে যাওয়ায় তিনি ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে এখনো চিকিৎসাধীন। এ দিকে এ অবস্থায় আবার রাস্তাটি দখল করে নিচ্ছেন আইয়ুব হোসেন রাসেল নামে রাস্তার দুই পাশের ওই জমির মালিক। গতকাল সরেজমিন দেখা গেছে, রাস্তার ওপর পাকা ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে এবং রাস্তার একাংশের মাটি কেটে নেয়া হয়েছে। এর ফলে পথচারীরা বহু কষ্টে পাশের অলিগলি দিয়ে বিকল্প পথে চলাচল করছেন। পাশের বাড়ির ৭০ বছরের বৃদ্ধ ফাতেমা বিবি কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার একমাত্র ছেলে স্বপন দীর্ঘ দিন ধরে সৌদি আরব থাকে। সে তিন মাসের ছুটিতে বাড়িতে এসেছিল। তাকেও মামলার আসামি করা হয়েছে। অপর বাড়ির মালিক জাহাঙ্গীর খান বলেন, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য নগর কর্তৃপরে অনুরোধে আমার বাড়ির তিনটি রুম, হরি বাবুর একটি মাটির ঘর ও নাজিম উদ্দিনের গাছপালাসহ দেয়ালও স্বেচ্ছায় ভেঙে নেয়া হয়েছে। জনস্বার্থে আমরা কাউন্সিলরের সাথে এ ব্যাপারে কোনো দ্বিমত পোষণ করিনি। অথচ ওই জমির নতুন মালিক আইয়ুব সাব প্রভাবশালী হওয়ায় তিনি কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে এলাকার সবার চলাচলের রাস্তাটি বন্ধ করে দিলেন।
স্থানীয়রা আরো জানান, রাস্তাটি দেশ স্বাধীনের আগে বাদুন হাইস্কুল পর্যন্ত পা চলাচলের রাস্তা হিসেবে ব্যবহৃত হতো। দেশ স্বাধীনের পর অধুনালুপ্ত পূবাইল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নিয়াজ উদ্দিন, নাজিম উদ্দিন, আহসান উল্লাহ মাস্টার, আজিজুর রহমান শিরিষ ও সুলতান উদ্দিন রাস্তাটি মাটি দ্বারা একাধিকবার সংস্কার করেন।

Logo

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,    
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫