ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

সরকার সরে যেতে বাধ্য হবে : ড. মঈন খান

নিজস্ব প্রতিবেদক

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে বর্বর নিষ্ঠুর আখ্যায়তি করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন, সবাই ঐক্যবদ্ধ হলে সরকার সরে যেতে বাধ্য হবে। তিনি বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন ও গণতন্ত্র ছাড়া কোনো জাতি সভ্য হতে পারে না। এই সরকার আফ্রিকার জঙ্গলের সরকার। এরা কোনো সভ্য সরকার নয়।

তিনি বলেন, আমরা অগণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নয়, গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এই অবৈধ সরকারকে উৎখাত করবো। আমরা তাদেরকে দেখিয়ে দিবো জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকলে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমেও ফ্যাসিবাদি শক্তিকে পরাজিত করা যায়।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম-৭১ আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তি ও নিরপেক্ষ নির্বাচন শীর্ষক এই প্রতিবাদ সভায় মঈন খান দেশের সমস্ত বিরোধী দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, গণতন্ত্রের জন্য উন্নয়ন ও উন্নয়নের জন্য গণতন্ত্র দরকার। বর্তমান ইসির কাঠামো দিয়ে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আসুন সরকারকে আলাদা করে দিয়ে সব গণতান্ত্রিক দল ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলন করি। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হলে এই অবৈধ সরকার নির্বাসনে যেতে বাধ্য হবে।

খুলনা সিটি নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, খুলনায় নির্বাচন নয় প্রহসন হয়েছে। খুসিকে নির্বাচনের নামে ধোঁকাবাজি বিশ্বের কাছে তুলে ধরেছে মিডিয়া। যেসব মিডিয়া সাহস করে দেশ ও বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরেছে আমি ব্যক্তিগতভাবে তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক বানোয়াট মামলায় কারাগারে অন্যায়ভাবে আটক রাখা হয়েছে মন্তব্য করে সরকারের উদ্দেশে বলেন, সামনে গণতান্ত্রিক আন্দোলন হবে। সরকারকে বলবো সমঝোতার আসুন। জনগণের ভোটাধিকার পালনে আপনারা ব্যর্থ হয়েছেন। এ জন্য আপনাদেরকে চরম মূল্য দিতে হবে। যা আপনারা চিন্তাও করতে পারছেন না। তাই সময় থাকতে বহুদলীয় গণতন্ত্র ফিরিয়ে দিন।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ। এসময় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-যুববিষয়ক সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.