শ্রীমঙ্গলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল দুই পথচারীর

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল দুই পথচারীর। রাস্তা পারাপারের সময় মাইক্রোবাস ও জিপ গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয় তাদের। পৃথক এঘটনায় গাড়ির চালকদের আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, বুধবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের ভূনবীর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের পাশে মাইক্রোবাসের চাপায় লাল মিয়া (৭৫) নামের এক পথচারী নিহত হন। তিনি উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নের পূর্ব নয়ারপুর এলাকার মৃত জহুর মিয়ার ছেলে। তিনি একজন আলু ব্যবসায়ী বলে স্থানীরা জানিয়েছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়, লাল মিয়া বিকেল ৪টা দিকে ইউনিয়ন অফিসের সামনে সড়কের এক পাশ থেকে অন্য পাশে যাওয়ার সময় শ্রীমঙ্গলগামী একটি নোহা মাইক্রোবাস তাকে ধাক্কা দিলে তিনি সড়কের পাশে পড়ে যান। পরে স্থানীয়রা লাল মিয়াকে উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপরদিকে একই দিন সকাল ১০টার দিকে উপজেলার সিন্দুরখাঁন ইউনিয়নের জাম্বুরাছড়া এলাকায় জিপ গাড়ির ধাক্কায় সাবেত্রী দাশ (৫০) নামের এক নারী ঘটনাস্থলেই মারা যান। তিনি সিন্দুরখাঁন ইউনিয়নের কুঞ্জবন গ্রামের সুশিল দাশের স্ত্রী।

সাতগাও হাইওয়ে ফাঁড়ির এসআই নান্নু মন্ডল ও শ্রীমঙ্গল থানার এসআই আবুল খায়ের পৃথক সড়ক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ভূনবীর সড়ক দুর্ঘটনার ঘটনায় মাইক্রোবাসের চালক মো: তারেক মিয়া (২৫) এবং গাড়িটিকে আটক করা হয়েছে। তিনি কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগরের রাধানগর গ্রামের আপ্তাব আলীর ছেলে। আর জাম্বুরাছড়ার ঘটনায়ও জিপ গাড়ির চালক সুরুজ আলীকে আটক করা হয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.