লিওনেল মেসি
লিওনেল মেসি

বার্সেলোনা নিয়ে মনের কথা বললেন মেসি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি বলেছেন, বিশ্বের কোনো দলেরই রিয়াল মাদ্রিদের মত জেতার ক্ষমতা নেই। মাঝে মাঝে খারাপ খেলেও মাদ্রিদ ঠিকই ম্যাচ শেষে ফলাফল আদায় করে নেয়।
এবার নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে রিয়াল। এবার তারা প্যারিস সেইন্ট-জার্মেই, জুভেন্টাস ও বায়ার্ন মিউনিখের মত দলকে পিছনে ফেলে ফাইনাল নিশ্চিত করে। অন্যদিকে বার্সা একটি মাত্র বাজে পারফরমেন্স দেখিয়ে রোমার কাছে এ্যাওয়ে ম্যাচে ৩-০ গোলে পরাজিত হয়ে প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়।

মেসি বলেছেন, পজিশনের দিক থেকে দেখতে গেলে প্রতিটি পজিশনেই মাদ্রিদে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়রা আছেন। বার্সাতেও আছে, কিন্তু মাদ্রিদে যা আছে তা কেবলমাত্র তাদেরই আছে। তারা খারাপ খেললেও ঠিকই ফল পায়। অথচ জয়ের দিক থেকে আমরা কিছুটা পিছিয়ে। এবারের চ্যাম্পিয়নস লীগে প্রথম লেগে ৪-১ গোলে এগিয়ে থেকেও সেমিফাইনালের আগে আমাদের বিদায় নিতে হয়েছে, যা সত্যিই অনেক হতাশার। কিন্তু একইসাথে আমি আবারো ফাইনালে মাদ্রিদের খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছি। আমি প্রতি বছর চ্যাম্পিয়নস লীগ জিততে চাই, প্রতি বছর লীগ জিততে চাই, এই লক্ষ্য নিয়েই আমরা মাঠে নামি।

এবারের মৌসুমে ডাবল শিরোপা দিয়ে মৌসুম শেষ করেছেন বার্সেলোনা। গত চার বছরে এটা তাদের তৃতীয় সাফল্য। কিন্তু গত তিন আসরে তারা ইউরোপে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছে। কিন্তু তারপরেও গত বছর ক্যাম্প ন্যুতে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি নবায়ন করে মেসি জানিয়েছেন এই ক্লাব ছাড়ার বিষয়টি তিনি চিন্তাও করতে পারেন না। মাঝে মাঝে তাকে নিয়ে ম্যানচেস্টার সিটিতে চলে যাওয়ার গুঞ্জন ওঠে। সেখানে সাবেক কোচ পেপ গার্দিওলা ও সার্জিও আগুয়েরোর সাথে তার যোগাযোগের বিষয়টি অনেকবারই আলোচনায় এসেছে। কিন্তু এ ব্যপারে একেবারেই নেতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন এই বার্সা সুপারস্টার।

এ সম্পর্কে মেসি বলেন, আমি কখনই বার্সা ছাড়বো না। আমার জন্য এর থেকে ভালো জায়গা হতে পারে না। এটা বিশ্বের সেরা দল। প্রতি বছর আমি এখানে সবকিছু জয়ের জন্য লড়াই করি। আমি জানি প্রতি মৌসুমে ব্যক্তিগত চ্যালেঞ্জের মুখে আমাকে পড়তে হয়। অন্য কোথাও গিয়ে এসব প্রমাণের প্রয়োজন আমার নেই।

 

বিশ্বকাপে ব্যর্থ হলেও অবসরে যাবেন না মেসি

রাশিয়া বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা যে ফলই করুক না কেন, দেশের হয়ে খেলা চালিয়ে যাবেন লায়নেল মেসি। অতীতে আবেগে হুট করে অবসরের ঘোষণা দিয়েছিলেন বার্সেলোনার এই ফরোয়ার্ড। সে জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন। আর্জেন্টিনার এই অধিনায়ক মনে করেন, বিশ্বকাপে সেরা চারে পৌঁছালেই সফল বলা যাবে দলকে। এরই মধ্যে রাশিয়া বিশ্বকাপের জন্য আর্জেন্টিনা ৩৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে। মেসি ছাড়াও আক্রমণভাগে আছেন পাওলো দিবালা, দিয়েগো পেরোত্তি, সার্জিও আগুয়েরো ও গঞ্জালো হিগুয়েনের মতো তারকারা। ব্রাজিলে চার বছর আগে জার্মানির কাছে হেরে যাওয়া দলটির চেয়ে এবারের দলটি বেশি শক্তিশালী। গত বিশ্বকাপ ফাইনালের পর টানা দুই কোপা আমেরিকা ফাইনালে চিলির কাছে হারের পর ২০১৬ সালে অবসরের ঘোষণা দেন মেসি। ওই ঘোষণা ভুল ছিল বলে স্বীকার করেছেন মেসি।

আর্জেন্টিনার টেলিভিশন টিওয়াইসি স্পোর্টসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ঘোষণা দেয়ার পর আমি ঠাণ্ডা মাথায় এটি নিয়ে ভেবেছিলাম এবং উপলব্ধি করি যে জাতীয় দল ছাড়ার ঘোষণা তরুণদের। আর যারা নিজের স্বপ্নের জন্য লড়ে, তাদের ভুল বার্তা দেয়া হয়। আসলে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে ভালো করার জন্য। মেসি আরো বলেন, ফাইনালে পৌঁছে জিততে না পারাটা একটা চাপ; যা আমরা বহন করে চলেছি। আমরা ওই বাঁধা টপকাতে চাই। জাতীয় দলের হয়ে এখনো কোনো বড় শিরোপা জয় করতে পারেননি মেসি। তবে রাশিয়ায় ব্যর্থ হলে জাতীয় দলকে বিদায় বলবেন না তিনি।

মেসি বলেন, যদি আমরা বিশ্বকাপ না জিতি, তাহলেও আমি জাতীয় দলের হয়ে খেলা চালিয়ে যাবো। অবশ্য মেসি বিশ্বাস করেন যে, বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে পৌঁছাতে পারলেই দলকে সফল বলা যাবে। এর চেয়ে ভালো করতে পারলে তা হবে বোনাস। একটা ভালো বিশ্বকাপ নিশ্চিতে সেরা চারে থাকতে হবে। আর্জেন্টিনা তার ঐতিহ্যের জন্য সেখানে থাকার দাবিদার। যদিও ওই লক্ষ্যে পৌঁছাতে অনেক কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। আমি মনে করি, আমরা আবারো সেখানে থাকব। মেসি এমন কথাগুলোই বলেন।

আগামী ১৬ জুন আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে আর্জেন্টিনা। ‘ডি’ গ্রুপের দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের অন্য দুই প্রতিপক্ষ নাইজেরিয়া ও ক্রোয়েশিয়া।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.