মৃতের নামে বয়স্ক ও স্বামী থাকতে বিধবা ভাতা উত্তোলন

বড়াইগ্রাম (নাটোর) সংবাদদাতা

বড়াইগ্রামের জোয়াড়ী ইউনিয়নে মৃত ব্যাক্তির নামে বয়স্ক ভাতা তুলে আত্নসাৎ, স্বামী জীবিত থাকতেও বিধবা ভাতা প্রদান এবং প্রতিবন্ধী না হয়েও ভাতা গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে। জোয়াড়ী ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড সদস্য ফেরদৌস উল আলম নিজেই সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে উৎকোচের বিনিময়ে এসব অনৈতিক সুবিধা দেয়ার অভিযোগ করেছেন।
এছাড়া তারা মৃত ব্যাক্তিদের নামে বয়স্ক ভাতা তুলে আত্নসাৎ করেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ সময় তিনি তার অভিযোগের স্বপক্ষে যাদের নামে এসব ভাতা উত্তোলন করা হচ্ছে, তাদের নামের তালিকা উপস্থাপন করেন।
বুধবার দুপুরে নাগরিক জীবনের নানা সমস্যা সমাধানের জন্য উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে গণশুনানীতে এ অভিযোগ করেন তিনি। উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে গণশুনানীতে এলাকার সর্বস্তরের জনগণ, বিভিন্ন দপ্তর প্রধান ও জনপ্রতিনিধিরা অংশ নেন।
গণশুনানিতে অবৈধ নদী দখলকারীদের উচ্ছেদ, ভূমি কর্মকর্তাদের অনিয়ম ও দাপ্তরিক কাজে বছরের পর বছর ঘুরানো, ঘুষ, রাস্তাঘাট নির্মাণে অনিয়ম, দুর্নীতি এবং এলাকার সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর ও সমাধান দেন জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন।
এছাড়া শুনানীতে উপস্থিত জনসাধারণের দাবীর প্রেক্ষিতে বড়াল নদীর উপরে স্থাপিত আটঘরিয়া স্লুইসগেট ও দিঘলকান্দি বাজারের বাঁধ অপসারণ করে ব্রিজ নির্মাণসহ পর্যটন স্পট বিল চিনাডাঙ্গার পদ্মবিলে যাতায়াতের উপযোগী রাস্তা ও ঘাট নির্মাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি।
গণশুনানীতে অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক রাজস্ব মনিরুজ্জামান ভূইয়া, বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনোয়ার পারভেজ, সহকারী কমিশনার ভূমি অভিজিৎ বসাক উপস্থিত ছিলেন। শুনানী কালে জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রবিউল করিমকে দ্রুত যাচাই-বাছাই করে বয়স্ক ও বিধবা ভাতাসহ সকল ভাতার তালিকাকে বিতর্কমুক্ত করার নির্দেশ দেন।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.