নেইমার
নেইমার

বর্ষসেরার মুকুট নেইমারের

নয়া দিগন্ত অনলাইন

ফ্রান্সের বর্ষসেরা খেলোয়াড়েরর পুরস্কার অর্জন করেছেন নেইমার। রোববার প্যারিসে অনুষ্ঠিত এক জমকালো অনুষ্ঠানে বর্ষসেরা খেলোয়াড় হিসেবে ব্রাজিলিয়ান এই তারকার নাম ঘোষণা করা হয়।
পায়ের ইনজুরির কারণে গত তিন মাস মাঠের বাইরে থাকলেও প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইর এই সুপারস্টারকে ছাড়া অন্য কোনো খেলোয়াড়ের কথা বর্ষসেরা হিসেবে চিন্তাই করতে পারেনি ফ্রান্স।

ইনজুরিতে যাওয়ার আগে পিএসজির হয়ে ২০টি লীগ ম্যাচে বিশ্বের সবচেয়ে দামী এই ফুটবলার করেছেন ১৯টি গোল। ইনজুরির কারণে ব্রাজিলে তার পায়ের অস্ত্রোপচার পর্যন্ত করাতে হয়েছে। চলতি মাসের শুরুতে ফ্রান্সে ফিরে আসলেও এখনও দলের বাইরে রয়েছেন। কিন্তু ইতোমধ্যেই মৌসুম শেষে তার দলত্যাগের গুঞ্জন উঠেছে।

এ সম্পর্কে ২৬ বছর বয়সী নেইমার বলেছেন, ‘এবারের মৌসুম নিয়ে আমি দারুণ খুশি। এই পুরস্কার সত্যিই অনেক বড় সম্মানের। সতীর্থদের ছাড়া আমি কোনোভাবেই এই পুরস্কার জিততে পারতাম না।’

এর আগে শনিবার পিএসজির লীগ ওয়ান শিরোপা জয়ের উৎসবের রাতে নেইমার ক্লাব ত্যাগের বিষয়টি উড়িয়ে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ট্রান্সফার উইন্ডো যখনই আসে আমরা এই বিষয়টি নিয়ে বারবার কথা বলি। কিন্তু এই মুহূর্তে আমি এ সম্পর্কে কিছুই বলতে চাই না। সবাই জানে আমি এখানে কেন এসেছি, আমার লক্ষ্য কি। এই মুহূর্তে আমার একমাত্র লক্ষ্য বিশ্বকাপ, ট্রান্সফার নয়।

এই পুরস্কার প্রাপ্তিতে নেইমার তার দুই পিএসজি সতীর্থ এডিনসন কাভানি ও কাইলিয়ান এমবাপ্পে ছাড়াও মার্সেইর উইঙ্গার ফ্লোরিয়ান থভিনকে পিছনে ফেলেছেন। কাভানি ২৮ গোল করে এ মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে এগিয়ে রয়েছেন।

১৯ বছর বয়সী এমবাপ্পে অবশ্য বর্ষসেরা তরুণ খেলোয়াড়ের পুরস্কার জয় করেছেন।

 

সব কিছু ছাপিয়ে নেইমারের ইনজুরি

কোনো ধরনের বিস্ময় ছাড়াই ২৩ সদস্যের ব্রাজিলিয়ান বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করেছেন কোচ তিতে। কিন্তু সব ছাপিয়ে বারবার উঠে এসেছে দলের সুপারস্টার নেইমারের ইনজুরির বিষয়টি। পায়ের ইনজুরির কারণে ফেব্রুয়ারি মাস থেকে মাঠের বাইরে রয়েছেন নেইমার। কোচ তিতেসহ সংশ্লিষ্ট সবারই প্রত্যাশা সঠিক সময়েই সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরবেন এই তারকা স্ট্রাইকার।

রিও ডি জেনিরোতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিতে ব্রাজিল দল ঘোষণা করেন। নেইমারের ফিটনেসই এখন দলের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এদিকে হাঁটুর ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপ থেকে ইতোমধ্যেই ছিটকে গেছেন অভিজ্ঞ রাইট-ব্যাক দানি আলভেস। তার স্থানে ম্যানচেস্টার সিটির ডিফেন্ডার ডানিলোকে ডাকা হয়েছে। এছাড়া কোরিনথিয়ান্সের ডিফেন্ডার ফাগনারও দলে জায়গা করে নিয়েছেন।

২০১৫ সালে ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নশীপ জয়ী দলের সদস্য হিসেবে তিতের সাথে ফাগনারের পরিচয় আছে। বর্তমানে ইনজুরিতে থাকলেও রাশিয়ায় যাওয়ার জন্য তাকে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছেন দলীয় চিকিৎসক রডরিগো লাসমার।

আগামী ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টুর্নামেন্ট ফেবারিট ব্রাজিল তাদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে।

স্কোয়াড :

গোলরক্ষক : এলিসন, ক্যাসিও, এডারসন

ডিফেন্ডার : ডানিলো, ফাগনার, মার্সেলো, ফিলিপ লুইস, মিরান্ডা, মারকুইনহোস, থিয়াগো সিলভা, জেরোমেল

মিডফিল্ডার : ক্যাসেমিরো, ফার্নান্দিনহো, পওলিনহো, রেনাটো অগাস্টো, ফ্রেড, উইলিয়ান, ফিলিপ কুতিনহো

ফরোয়ার্ড : নেইমার, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, রবার্তো ফিরমিনো, ডগলাস কস্তা, টাইসন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.