জয়দেবপুর-এলেঙ্গা সড়কের ব্যয় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে
জয়দেবপুর-এলেঙ্গা সড়কের ব্যয় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে

জয়দেবপুর-এলেঙ্গা সড়কের ব্যয় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক

নিয়ন্ত্রণহীনভাবে বাড়ছে সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যয়। সাসেক জয়দেবপুর চন্দ্রা টাঙ্গাইল এলেঙ্গা সড়ক প্রকল্পর ব্যয় এই নিয়ে তিনবার ব্যয় বাড়ানো হলো। ২ হাজার ৭৮৮ কোটি ৪৫ লাখ ৫৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের এই প্রকল্প ব্যয় ৫ হাজার ৫৯৩ কোটি ১৬ লাখ টাকায় দাঁড়ালো। মেয়াদ দুমাস পার করে দিয়ে ব্যয় বৃদ্ধি একনেকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় পায়রা বন্দর প্রকল্পটিসহ মোট ১৪টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। সভা শেষে ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রকল্পগুলোর ব্যাপারে সাংবাদিকদের জানান। মন্ত্রী জানান, ১৩ প্রকল্পে ব্যয় হবে ১৩ হাজার ২৮৮ কোটি ৬০লাখ টাকা। এর মধ্যে ৭ হাজার ৫৯ কোটি ৫৪লাখ টাকা দেয়া হবে জিওবি খাত থেকে। বিদেশি অর্থায়ন ৬ হাজার ১৯৩ কোটি টাকা।

প্রাপ্ত তথ্যে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালের এপ্রিলে সাসেক সড়ক প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। এরপর ব্যয় প্রথমে তিন হাজার ৬৬ কোটি ৮০ লাখ ২৩ হাজার টাকা করা হয় ২০১৪ সালে। ২০১৬ সালে দ্বিতীয় দফায় তিন হাজার ৩৬৪ কোটি ৭৪ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। ২০১৮ সালের মার্চে শেষ হওয়ার কথা ছিল। এখন মেয়াদ ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত করা হচ্ছে। বিভিন্ন অঙ্গের ব্যয় বৃদ্ধির জন্য প্রকল্প ব্যয় বাড়ছে। ৭০ কিলোমিটার সড়ক দু'লেন থেকে চার লেনে করা হচ্ছে। এখানে ১১টি ফ্লাইওভার নির্মান করা হবে।

এছাড়া সভায় তিন হাজার ৫০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে খুলনা-দর্শনা জশন সেকশনে ডাবল লাইন রেলপথ নির্মাণ করা হবে। ভারতীয় ঋনের অর্থে ১২৬ দশমিক ২৫ কিলোমিটার লাইন নির্মাণ করা হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.