ডাটা কেলেঙ্কারির নিয়ে ফেসবুকের সতর্কতা

আহমেদ ইফতেখার

বিশ্বের জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ সাইটের সুনাম ও ব্র্যান্ড মর্যাদায় বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে বলে বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। কারণ ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্য নিয়ে ভবিষ্যতে আরো কেলেঙ্কারি হতে পারে। এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মার্ক জাকারবার্গ আর্থিক খতিয়ান প্রকাশকালে জানান, ২০১৮ সালের শুরুটা হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ কিছু চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার মধ্য দিয়ে। রাজনৈতিক পরামর্শক ও ডাটা বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারির ঘটনা আমাদের কমিউনিটি ও ব্যবসায় কোনো নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারেনি। বিজ্ঞাপন থেকে ফেসবুকের আয় বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে এক বছর আগের একই সময়ের চেয়ে রাজস্ব ৫০ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ১৯৭ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। রাজস্ব আয়ে আমরা পূর্বাভাসকে ছাড়িয়েছি। বিজ্ঞাপন থেকে প্রতিষ্ঠানটির আয় বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। কঠোর নীতিমালা সত্ত্বেও বিপণনকারীরা তাদের পণ্যের প্রচারণার জন্য ফেসবুকের ডিজিটাল বিজ্ঞাপন প্লাটফর্মকে গুরুত্ব দিচ্ছে।

অবাক করার বিষয় হলো ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারি ফেসবুকের আয়ে ন্যূনতম প্রভাব ফেলতে পারেনি। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) এক বছর আগের একই সময়ের চেয়ে এর রাজস্ব ৫০ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ১৯৭ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। রাজস্ব আয়ে পূর্বাভাসকে ছাড়িয়েছে সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্টটি। নিরাপত্তা, সুরক্ষা ও কনটেন্ট পর্যালোচনায় বিনিয়োগ বৃদ্ধি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্যের অপব্যবহার ঠেকাতে ভূমিকা রাখবে। গত মার্চে রাজনৈতিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা ডাটা কেলেঙ্কারির তথ্য প্রকাশ পায়। এ নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে ফেসবুক। মার্ক জাকারবার্গ সব অভিযোগ স্বীকার করে এক পর্যায়ে আট কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের তথ্য বেহাত ও অপব্যবহার হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেন।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.