গ্রন্থালোচনা

যৌবনের যত্ন

নয়া দিগন্ত অনলাইন

যৌবনের যত্ন

লেখক : মুহাম্মদ আবুল হুসাইন

প্রকাশক : সময় প্রকাশন

প্রকাশ কাল : একুশে বইমেলা’২০১৮

১৮৩ পৃষ্ঠা, হার্ড কভার।

মূল্য : ৩২০/-

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। জীবনে সফলতা পেতে হলে, মানুষের মতো সম্মান ও ইজ্জত নিয়ে বাঁচতে হলে কঠোর পরিশ্রম ও সংগ্রাম সাধনার কোনো বিকল্প নেই। আর এজন্য শরীর-স্বাস্থ্য ভালো থাকা প্রয়োজন। স্বাস্থ্যের ওপর আমাদের জীবনের প্রায় পুরো অংশটাই নির্ভরশীল। স্বাস্থ্য ঠিক তো সব ঠিক। গবেষণায় দেখা যায় যারা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী তারা সকল দিক দিয়ে অন্য সকলের থেকে এগিয়ে থাকেন।

মানব জীবনের সবচেয়ে কর্মক্ষম সময় হল যৌবনকাল। মানুষের জীবনে যৌবন আসে অফুরন্ত প্রাণ-চাঞ্চল্য ও শক্তি-সামর্থের সম্ভাবনা নিয়ে। তবে,তা নির্ভর করে যৌবনের যথাযথ বিকাশের উপর। কোন কারণে যদি এই বিকাশ ব্যাহত হয়, তাহলে নষ্ট হয়ে যেতে পাওে বিপুল সম্ভাবনা, বঞ্চিত হতে হয় জীবনের অফুরন্ত সুখ ও আনন্দ থেকে।

তাই যৌবনের যথাযথ বিকাশ এবং এই বিকাশ যেন কোনভাবেই ব্যাহত না হয় তার জন্য প্রয়োজন সচেতনতা। প্রয়োজন যথাযথ যত্নের। আর সঠিক যত্ন নিতে হলে জীবন, যৌবন, খাদ্য, অভ্যাস, ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্য সম্পর্কিত কিছু মৌলিক বিষয় সম্পর্কে সচেতন থাকা প্রয়োজন। এই মৌলিক বিষয়গুলো সম্পর্কে অজ্ঞ বা বেখবর থাকলে সঠিক যত্ন নেয়া কখনো সম্ভব হবে না।

‘যৌবনের যত্ন’ গ্রন্থটিতে সেসব মৌলিক বিষয় সমূহ সাধারণ পাঠকের উপযোগী করে অত্যন্ত সাবলীল ও প্রাঞ্জল ভাষায় উপস্থাপন করা হয়েছে। এটি মূলত যৌবন-স্বাস্থ্যের যত্ন সম্পর্কিত একটি সংকলন ও অনুবাদ গ্রন্থ। এতে সংকলিত প্রতিটি লেখাই অত্যন্ত বাছাইকৃত, সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশ্বের খ্যাতিমান বিশেষজ্ঞ লেখকদের লেখাই এখানে স্থান পেয়েছে।

বইটি রচনা, অনুবাদ ও সম্পাদনা করেছেন মুহাম্মদ আবুল হুসাইন। তিনি পেশায় সাব-এডিটর। পেশাগত কারণেই তাকে লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক লেখা অনুবাদ করতে হয়। বইটির অনুবাদে লেখকের যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় পাওয়া যায়। এর ভাষা যথেষ্ট প্রাঞ্জল ও সাবলীল।

আমরা মনে করি, বইটি মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য-সচেতনতা বাড়াতে সহায়ক হবে। বিশেষ করে উঠতি বয়সী তরুণ-তরুণীদেরকে স্বাস্থ্য সচেতন করতে এবং নিজেদের স্বাস্থ্যের প্রতি অধিক যত্নবান হতে ‘যৌবনের যত্ন’ বইটি বিশেষভাবে সহায়ক হবে। কারণ, এই বয়সের ছেলে-মেয়েরা সাধারণত নিজেদের স্বাস্থ্যের যত্নের ব্যাপারে অনেকটা উদাসীন থাকে। তাই এমন গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থটি প্রতিটি পরিবারে থাকা প্রয়োজন বলে মনে করি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.