কাচে সজ্জিত অন্দর
কাচে সজ্জিত অন্দর

কাচে সজ্জিত অন্দর

ঝরনা রহমান

আজকাল ইন্টেরিয়র ডিজাইন খুব জনপ্রিয়। আকর্ষণীয়, দৃষ্টিনন্দন ঘরের সাজ চান প্রায় সবাই। তাইতো রঙ, আসবাব, লাইটিং সব কিছুই এখন অনেক বেশি আকর্ষণীয়। 

ঘরের সাজে অভিনবত্ব আনতে কাচ হতে পারে অন্যতম একটি উপকরণ। আধুনিক এই সময়ে কাচের ব্যবহার ব্যাপক। ঘরের দরজা, জানালা, পার্টিশান ছাড়াও সেলফ, টেবিলের টপ কাউন্টার এমনকি সিঁড়িতেও আজকাল কাচ ব্যবহার হচ্ছে। তবে মনে রাখতে হবে প্রতিটি কাজের জন্য বিশেষ ধরনের কাচ রয়েছে। একই ধরনের কাচ সব জায়গায় ব্যবহার করা যায় না।

কাচ ব্যবহারের বড় সুবিধা হচ্ছে এতে ঘর বেশ বড় দেখায়। কারণ পার্টিশান হিসেবে কাচ ব্যবহার করা হলে সেটা আলাদা করার কাজটা করে ঘরকে ছোট ও অন্ধকারাচ্ছন্ন না করেই। একই সাথে আকর্ষণীয় উপাদানও যোগ করা যায়, যা অন্দর সাজে নিয়ে আসে মডার্ন লুক। ছোট বাড়িতে কাচের পার্টিশান ওয়াল বেশি কার্যকর। এতে ঘর বড় দেখায় একইভাবে আলোর প্রাচুর্যও চোখে পড়ে। তবে একসাথে একটা জায়গায় কাচের ব্যবহার করাটাই সঠিক হবে।

শোপিস রাখার জন্য গ্লাসের শোকেস চমৎকার কাজ করে। এতে সহজেই আপনার পছন্দের জিনিসগুলো সাজিয়ে রাখতে পারেন, যা অনেক বেশি দৃশ্যমান থাকবে।
কাচের পার্টিশান ঘরে দেবে কিছুটা শব্দহীন পরিবেশ। যেখানে আপনি নিজের কাজটা করার সাথে সাথে বাড়ি বা অফিসের অন্য জায়গায় কী হচ্ছে সে বিষয়েও লক্ষ্য রাখতে পারবেন। এ ছাড়া কালার করা গ্লাস, নকশাদার গ্লাস, ফ্রসটেড গ্লাস প্রভৃতি ব্যবহার করতে পারেন জানালা, দরজা বা ওয়ালের বিকল্প হিসাবে। এমনকি গ্লাস, প্যানেল হিসেবেও ব্যবহার করা যায় অন্দর সাজে অভিনবত্ব আনতে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.