সিরাজগঞ্জ-৫ আসনে বিএনপির মনোনয়ন চান মেজর (অব:) মামুন

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা

সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি-চৌহালী) আসনে বিএনপির মনোনয়ন চান চৌহালী উপজেলা চেয়ারম্যান মেজর (অব:) আব্দুল্লাহ আল-মামুন। তিনি বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের সমর্থনে বিজয়ী হয়ে এলাকার উন্নয়নে এবং তৃনমুলের নেতাকর্মীদের নিয়ে দলকে সুসংগঠিত করতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার বাবা আনছার আলী সিদ্দিকী ১৯৯১ সালে বিএনপি সরকারের সেচ পানি উন্নয়ন ও বন্যা নিয়ন্ত্রন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। এছাড়া সরকারে যুগ্নসচিব ও ডিসি হিসেবে এলাকায় তার সুনাম রয়েছে।

মেজর মামুন ২০১১ সালে সেনাবাহিনীর চাকুরি থেকে অবসরে যাওয়ার পর সরাসরি বিএনপির রাজনৈতিক কর্মকান্ডে সক্রিয় অংশ গ্রহন করেন। চৌহালী উপজেলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মকান্ডে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ায় তাকে উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা সদস্য নির্বাচিত করা হয়।

এদিকে যমুনা বিধ্বস্ত চরাঞ্চলে বন্যার্ত, শীতার্তদের পাশে দাড়ানোসহ নদী ভাঙনরোধে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখায় এলাকায় জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। একারনে বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির সমর্থনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

এবিষয়ে চৌহালী উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জানান, এলাকার উন্নয়নে উপজেলা চেয়ারম্যান মেজর মামুন এবং তার পিতা প্রয়াত আনসার আলী সিদ্দিকীর (সাবেক প্রতিমন্ত্রী) বিশেষ অবদান রয়েছে। এছাড়া তৃনমূলের নেতাকর্মীদের দাবি ও এলাকার অবস্থানের কথা চিন্তা করে হাইকমান্ড নিশ্চয় তাকেই মনোনয়ন দিয়ে এ আসনটি পুনরুদ্ধার করবে।

মেজর (অব:) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, সেনাবাহিনীর চাকুরি ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিত্বের দীর্ঘ অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে একটি সমৃদ্ধ এলাকা বিনির্মানে কাজ করে যাচ্ছি। দল আমাকে মনোনয়ন দিলে নির্বাচিত হয়ে চৌহালীর প্রধান সমস্যা নদী ভাঙনরোধ ও রাজধানীর সাথে সড়ক যোগাযোগ উন্নত করতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অপর দিকে বেলকুচি-এনায়েতপুরের তাঁত শিল্পকে আন্তর্জাতিক মানের করতে গ্যাস সংযোগ, ক্ষুদ্র কুটির শিল্প প্রশিক্ষন কেন্দ্র চালু, শিল্পবর্জ্য শোধনাগার নির্মানসহ এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.