প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। পাশে কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। পাশে কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া

২৫তম সিএইচওজিএম উদ্বোধন : শেখ হাসিনার যোগদান

বাসস

ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ গতকাল সকালে লন্ডনের বাকিংহাম প্যালেসে দু’দিনব্যাপী ২৫তম কমনওয়েলথ সরকারপ্রধানদের বৈঠকের (সিএইচওজিএম) আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। কমনওয়েলথ সদস্যভুক্ত ৫৩টি দেশের সরকারপ্রধান বৈঠকে অংশগ্রহণ করছেন।


উদ্বোধন অনুষ্ঠানে রানী বলেন, কমনওয়েলথ ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য স্থিতিশীলতাকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরবে এবং ১৯৪৯ সালে আমার পিতার শুরু করা গুরুত্বপূর্ণ কাজটি প্রিন্স অব ওয়েলস আরো এগিয়ে নিয়ে যাবে।


সম্মেলনের উদ্বোধন অধিবেশনে প্রিন্স চাল্র্স, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে এবং কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড কিউসি বক্তব্য রাখেন। গার্ড অব অনার প্রদান এবং সদস্য রাষ্ট্রগুলোর পতাকা বহনের মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়।


বিশেষ পোশাকে সজ্জিত শতাধিক কর্মকর্তা ও সৈন্য ব্যান্ড ও ড্রাম বাজিয়ে গার্ড অব অনার প্রদান করে। উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে কমনওয়েলথ নেতৃবৃন্দ ল্যানকাস্টার হাউজে তিনটি কর্ম অধিবেশনে যোগ দেবেন। কমনওয়েলথ নেতৃবৃন্দ পরে ল্যানকাস্টার হাউজে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা এবং কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়ার দেয়া আনুষ্ঠানিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা।
কমনওয়েলথ নেতৃবৃন্দ বিকেলে সেন্টস জেম্স প্যালেসে কমনওয়েলথ মহাসচিবের দেয়া অপর এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। সম্মেলনে কমনওয়েলথ সদস্য দেশগুলোর লক্ষ্য অর্জনে সমৃদ্ধি, নিরাপত্তা, স্বচ্ছতা ও টেকসইয়ের ওপর বিশেষ মনোযোগ দেয়ার কথা।


সম্মেলনে মাল্টার প্রধানমন্ত্রী ড. জোসেফ মাসকাটের কাছ থেকে কমনওয়েলথ চেয়ার ইন অফিস ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র কাছে স্থানান্তর হবে। তেরেসা মে ২০২০ সালে অনুষ্ঠেয় ২৬তম সিএইচওজিএম পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করবেন।


২০১৭ সালের শেষ নাগাদ ২৫তম সিএইচওজিএম অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। স্বাগতিক দেশ ছিল ভানুয়াত; কিন্তু প্রাকৃতিক দুযোর্গে দেশটি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় পরে যুক্তরাজ্যে আয়োজন করা হয়।
সিঙ্গাপুরে ১৯৭১ সালে কমনওয়েলথ নেতৃবৃন্দের প্রথম সিএইচওজিএম অনুষ্ঠিত হয়। সর্বশেষ সিএইচওজিএম অনুষ্ঠিত হয় ২০১৫ সালে মাল্টায়।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.