দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে চট্টগ্রামবাসী রাজপথে থাকবে : ডা: শাহাদাত

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা: শাহাদাত হোসেন বলেছেন, সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন দেশমাতা, বেগম খালেদা জিয়ার ওপর চরম ও অন্যায় অবিচার চালানো হচ্ছে। তিনি শুধু এ দেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রীই নন, দেশের একজন জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ, মানুষের ভরসাস্থল, বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষার প্রতীক এবং বারবার দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনের নেত্রী। বেগম জিয়ার জামিন নিয়ে নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচরণ করছে এ অবৈধ সরকার। তিনি বলেন, ন্যায়বিচার আজ ভূলুণ্ঠিত। মানবতা ও মানবিকতা বিবর্জিত। ন্যায়বিচার থেকে দেশের মানুষ আজ বঞ্চিত। প্রতিনিয়ত হাজার হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার ও নির্যাতন করা হচ্ছে। এ স্বৈরাচার সরকার অতীতের সব স্বৈরাচারী সরকারকে হার মানিয়েছে। ডা: শাহাদাত আরো বলেন, এ দেশের মানুষের আশাআকাক্সক্ষার প্রতীক, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে সরকারের কোনো ষড়যন্ত্রই সফল হবে না। এ দেশের মানুষের গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ, আইনের শাসন, ন্যায়বিচার, ভোটাধিকার ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি গণতান্ত্রিক আন্দোলন চালিয়ে যাবে। তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে চট্টগ্রামবাসী রাজপথে থাকবে। তিনি গত মঙ্গলবার কোতোয়ালি থানার একটি মামলায় হাজিরা শেষে কোর্ট হিল চত্বরে বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এ এম নাজিম উদ্দিন, নগর বিএনপির সহসভাপতি এস কে খোদা তোতন, নিয়াজ মোহাম্মদ খান, অ্যাডভোকেট মফিজুল হক ভূইয়া, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, গাজী সিরাজ উল্লাহ, অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম সাজ্জাদ, অ্যাডভোকেট নেজাম উদ্দিন, বিএনপি নেতা হাজী বাদশা মিয়া, অ্যাডভোকেট আবদুল মান্নান, অ্যাডভোকেট মাহমুদুল আলম চৌধুরী মারুফ, জিয়াউর রহমান জিয়া প্রমুখ।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.