ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

রাজশাহী

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি

দুই পুলিশ কনস্টেবলসহ গ্রেফতার ৩

নাটোর সংবাদদাতা

১৭ এপ্রিল ২০১৮,মঙ্গলবার, ১৭:৪৪


প্রিন্ট
দুই পুলিশ কনস্টেবলসহ গ্রেফতার ৩

দুই পুলিশ কনস্টেবলসহ গ্রেফতার ৩

নাটোরে ভুঁয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ জমা দিয়ে পুলিশ কনস্টেবল (সিপাহী) পদে চাকরি নেয়ার দায়ে ২ কনস্টেবলসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ৬ জনকে অভিযুক্ত করে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত অপর ৩ জনকে আটক করতে পুলিশের অভিযান চলছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নাটোর সদর উপজেলার লালমনিপুর গ্রামের ফরজ মন্ডলের ছেলে কনস্টেবল রবিন হোসেন (১৯), বড়াইগ্রাম উপজেলার বাগডোম গ্রামের সাইফুল জোয়ারদারের ছেলে কনস্টেবল ইমরান হোসেন (২০) ও তাদের সহযোগি নাটোর পুলিশ লাইনসের বাবুর্চি নাটোর সদর উপজেলার বড়হরিশপুর এলাকার আব্দুল খালেক মিয়ার ছেলে সোহাগ হোসেন (৩১) ।

নাটোর সদর থানার সেকেন্ড অফিসার ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আকিবুল ইসলাম মঙ্গলবার দুপুরে নাটোর সদর থানায় সাংবাদিকদের জানান, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী নাটোরে পুলিশ কনস্টেবল পদে লোক নিয়োগ দেওয়া হয়।

এই নিয়োগের সময় রবিন হোসেন এবং ইমরান হোসেন নাটোর পুলিশ লাইনের বাবুর্চি সোহাগ হোসেনসহ অপর ৩ ব্যক্তির সহযোগিতায় ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ ব্যবহার করে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরি গ্রহণ করেন।

পরে পুলিশী তদন্তের সময় তাদের দেয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদটি জাল বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। এ ঘটনায় রবিন হোসেন, ইমরান হোসেন ও পুলিশ লাইনসের বাবুর্চি সোহাগ হোসেনসহ ৬ জনকে অভিযুক্ত করে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

মামলার প্রেক্ষিতে রবিন হোসেন এবং ইমরান হোসেন ও সোহাগ হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনার সাথে জড়িত বাকি অভিযুক্তদের গ্রেফতারের অভিযান চালানো হচ্ছে। তদন্তের স্বার্থে ঘটনার সাথে জড়িত অন্যদের নাম প্রকাশ করতে অপারগতা প্রকাশ করেছে পুলিশ।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫