নির্বাচন-পাগল তোমছেল এবার এমপি প্রার্থী
নির্বাচন-পাগল তোমছেল এবার এমপি প্রার্থী

নির্বাচন-পাগল তোমছেল এবার এমপি প্রার্থী

বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী) সংবাদদাতা

একজন দিনমজুর তোমছেল বিশ্বাস। ভ্যান চালিয়ে যা আয় হয় তা দিয়েই চলে তার সংসার। সুখে-শান্তিতেই দিন কাটাচ্ছেন তিনি। বাড়ি রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের বেতাঙ্গা গ্রামে। তিনি আগে স্থানীয় ইউপি সদস্য, জামালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে অংশগ্রহণ করেছেন। নির্বাচন এলেই যেন স্থির থাকতে পারেন না। এবার তিনি রাজবাড়ী-২ ( পাংশা, বালিয়াকান্দি ও কালুখালী) সংসদীয় আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন।

এ লক্ষে নিজের উপার্জনের একমাত্র ভ্যানটি নিয়ে পথে, ঘাটে, মাঠে, বাজার, মহল্লা, স্কুল, কলেজ এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেছেন। তবে সচারাচার রাজনৈতিক দলের মতো তার নিজস্ব কোনো কর্মী ছাড়াই চলছে বিরতিহীনভাবে এ ব্যাতিক্রম গণসংযোগ। মোড়ে মোড়ে দোকানের সামনে নিজের ভ্যান চালিয়ে গিয়ে লোকজনের কাছে তার প্রার্থিতার কথা তুলে ধরছেন। শুধু তাই নয় তিনি এলাকার মানুষের নানা সমস্যা ও সমাধানে ব্যতিক্রমী প্রতিশ্রুতি দিতেও কুন্ঠাবোধ করছেন না।

তার এ গণসংযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে নিজেকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দিয়ে তোমছেল বিশ্বাস জানান, সমাজ থেকে অন্যায়, জুলুম, ঘুষ-দুর্নীতি, জমি দখল, হানাহানি, রাহাজানি, চাকরির নামে অর্থ গ্রহণসহ সকল ধরনের অপরাধ নির্মূল করতে তিনি এবার এমপি হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেন।

তিনি আরো বলেন, আমি ইতিপূর্বে ইউপি সদস্য ও ইউপি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছি। বিগত উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চেয়েছিলাম। আমার একমাত্র উপার্জনক্ষম ভ্যানটি চুরি হয়ে যায়। এ কারণে নির্বাচনে অংশ নিতে পারেনি। তার পরও মানুষ রসিকতার ছলে হলেও আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবেই সম্বোধন করে থাকেন। এ কারণেই আমি এবার সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে ও জনগণের সমর্থন আদায়ে গণসংযোগ শুরু করেছি। আমার মতো মানুষ যদি এমপি হয়, তাহলে সমাজ থেকে দুর্নীতি চিরতরে বন্ধ হবে। আমি যত দিন বেঁচে থাকব মানুষের ভালোবাসা নিয়ে থাকব। শ্রমজীবি মানুষ আমাকেই ভোট দেবে।

কারণ হিসেবে তিনি বলেন, আমি তো কারো জমি দখল, দুর্নীতি করতে পারব না।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.