ঢাকা, মঙ্গলবার,২৪ এপ্রিল ২০১৮

আরো খবর

প্রশ্নপত্র দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা : গ্রেফতার ২

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭ এপ্রিল ২০১৮,মঙ্গলবার, ০১:১৮


প্রিন্ট
এইচএসসি পরীার প্রশ্নপত্র দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গ্রেফতারকৃতরা হলো : ইমন হোসাইন (২২) ও মিলন মিয়া (১৯)। ইমনকে গতকাল টঙ্গীর মধুমিতা কাঁচাবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১। এ সময় তার কাছ থেকে ভুয়া প্রশ্নপত্র সরবরাহের কাজে ব্যবহৃত দু’টি মোবাইল ও চারটি সিমকার্ড জব্দ করা হয়। এ ছাড়া মিলনকে টঙ্গীর কলেজগেট থেকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসের কাজে ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন ও সিমকার্ড জব্দ করা হয়। 
র‌্যাবের দাবিÑ গ্রেফতারকৃতরা টেলিগ্রাম অ্যাপস ও ফেসবুক অ্যাপসের মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস করে আসছে। 
র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল সারওয়ার-বিন-কাশেম জানান, ইমন ২০১৩ সালে মাহমুদাবাদ রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দেয়। সে শরিফ খান নামে একটি ফেইক আইডি খুলে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সরবরাহের জন্য স্ট্যাটাস দেয়। এই প্রলোভনে পড়ে অনেক শিক্ষার্থী বিকাশের মাধ্যমে তাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা পাঠিয়ে দেয়। পরে ইমন আগের বিভিন্ন বোর্ড পরীক্ষার প্রশ্নপত্র কাটছাঁট করে এবং বিভিন্ন গ্রুপ থেকে প্রশ্নপত্রের নমুনা সংগ্রহ করে বোর্ড প্রশ্নের মতো তৈরি করে এসব ভুয়া প্রশ্ন শিক্ষার্থীর কাছে সরবরাহ করে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেয়। 
মিলনের ব্যাপারে র‌্যাব-১ প্রধান জানান, চলতি বছরে ধনুয়া আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে মিলন। সামাজিক মাধ্যমে বিভিন্ন নামে গ্রুপ খুলে এবং টেলিগ্রাম অ্যাপস ব্যবহার করে ইমনের মতোই ভুয়া প্রশ্নপত্র তৈরি করে টাকার বিনিময়ে শিক্ষার্থীদের কাছে সরবরাহ করত। এ ঘটনায় মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। 
বরিশাল ব্যুরো জানায়, এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন মোবাইল ফোনে ছবি তুলে বাইরে এনে উত্তরপত্র তৈরিকালে তিন শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটে গতকাল বেলা ১১টায় জেলার উজিরপুর উপজেলা সদরের বিএন খান কলেজ কেন্দ্রের পাশের কলেজশিক্ষক পরেশ বেপারীর বাসায়।
উজিরপুর মডেল থানার এসআই মিজানুর রহমান জানান, ব্যবস্থাপনা ও হিসাববিজ্ঞান পরীক্ষা চলাকালে প্রশ্নপত্রের ছবি তুলে উত্তরপত্র তৈরির গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই কেন্দ্রের পাশের কলেজশিক্ষক পরেশ বেপারীর বাসায় অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে উত্তরপত্র তৈরিকালে মুন্সীর তালুক কলেজের ব্যবস্থাপনার শিক্ষক আবুল কাশেম, রামেরকাঠী কলেজের শিক্ষক সমীরণ কুমার ও পরেশ বেপারীকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ওই তিন 
গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, গাজীপুরে এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্রের এক সদস্যকে গতকাল আটক করেছেন র‌্যাব-১-এর সদস্যরা। মহানগরের টঙ্গীর কলেজগেট হোসেন মার্কেট এলাকায় অভিযান চালিয়ে মো: মিলন মিয়া (১৯) নামের ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়। সে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মুলাইদ এলাকার আব্দুল মজিদের ছেলে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫