ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

সাতরঙ

ত্বকের যতেœ ময়েশ্চারাইজার রূপ কথা

নিপা আহমেদ

১৭ এপ্রিল ২০১৮,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

ত্বককে সতেজ ও লাবণ্যময় রাখতে ময়েশ্চারাইজিং প্রয়োজন বছরের প্রতিটি দিনই। তবে সেটা ব্যবহার করতে হবে ত্বক বুঝে। শুষ্ক ত্বকের জন্য এক ধরনের আর তৈলাক্ত ত্বকের জন্য আরেক ধরনের ময়েশ্চারাইজার। মনে রাখতে হবে শুষ্কতা রোধ করার পাশাপাশি অনেক গুরুত্বপূর্ণ উপাদানের জোগান দেয় ময়েশ্চারাইজার। এ বিষয়ে আরো জানাচ্ছেন রূপ বিশেষজ্ঞ
শারমিন সেলিম তুলি।
ময়েশ্চারাইজিংয়ের প্রয়োজনীয়তা : ময়েশ্চারাইজার ত্বকে পানি ও তেলের ভারসাম্য বজায় রাখে। আবহাওয়ার পরিবর্তনে অনেক সময় ত্বকের ময়েশ্চার হারিয়ে যায়। ত্বকের যতেœ এটি খুবই জরুরি। ত্বকের বলিরেখা, দাগ ও রুক্ষতা দূর করে ময়েশ্চারাইজার ত্বককে উজ্জ্বল, সতেজ, দাগহীন, মসৃণ ও টানটান করে তোলে। মুখে প্রতিদিন ময়েশ্চারাইজিং লোশন অল্প করে লাগিয়ে ১০ মিনিট হালকা হাতে ম্যাসাজ করলে দীর্ঘ দিন পর্যন্ত ত্বক তরতাজা থাকে। এ ছাড়া হাত-পা ও সারা শরীরে ম্যাসাজ করলে ত্বক বহু দিন পেলব, নমনীয় ও উজ্জ্বল থাকবে। গোসলের পরপরই ময়েশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করা প্রয়োজন।
ত্বকের ধরন অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার : স্বাভাবিক ত্বকের জন্য ওয়াটার-বেসড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। শুষ্ক ত্বকে ক্রিম-বেজড ময়েশ্চারাইজার উপযোগী, আর তৈলাক্ত ত্বকে ব্যবহার করুন অয়েল ফ্রি ময়েশ্চরাইজার। যাদের ত্বক মিশ্র বৈশিষ্ট্যের তারা ব্যবহার করুন লাইট, হাইড্রেটিং ময়েশ্চারাইজার। দিনে দু’বার এই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। আর যাদের ত্বক স্পর্শকাতর অর্থাৎ অতি মাত্রায় সেনসেটিভ তাদের জন্য ভিটামিন এ, সি এবং ই-যুক্ত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা প্রয়োজন। এই ধরনের ত্বকের জন্য সুগন্ধবিহীন ময়েশ্চারাইজারই আদর্শ।
ময়েশ্চারাইজিং মাস্ক
হ দুধ ও মধু মিশিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন। মুখে ও গলায় ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
হ তিলের তেল খুবই উপকারী ময়েশ্চরাইজার।
হ তিলের তেল ও আমন্ড অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে ম্যাসাজ করুন ১০ মিনিট। এরপর ধুয়ে ফেলুন।
হ ডিমের সাদা অংশ ও মুলতানি মাটি একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। এরপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
হ গ্লিসারিন, গোলাপপানি ও লেবুর রস সমপরিমাণে মিশিয়ে ফ্রিজে রাখুন। ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করবে।
হ স্বাভাবিক ত্বকে মধু, লেবুর রস ও দই মিশিয়ে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা ও মসৃণতা বজায় থাকে।
হ আপেল ও লাল আঙুর ব্লেন্ড করে মধু দিয়ে মিশিয়ে ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
ময়েশ্চারাইজিং টিপস
হ গোসলের পর পরই ত্বকে ভেজা ভাব থাকতে থাকতে তেল বা লোশন লাগানোর অভ্যাস করুন। প্রতিদিন সকালে ও রাতে দু’বার ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। ভেজা ত্বকে ময়েশ্চরাইজার লাগালে ত্বকে অতিরিক্ত ময়েশ্চার বজায় থাকে।
হ ময়েশ্চারাইজার লাগানোর পর সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করুন। ক্লিনজিংয়ের পর অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। মেকআপ করার আগে ময়েশ্চারাইজিং লোশন বা ক্রিম লাগিয়ে নেবেন।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫