ঢাকা, মঙ্গলবার,২৪ এপ্রিল ২০১৮

অন্যদিগন্ত

সিরিয়ায় ফের হামলা হলে বিশ্বে গোলযোগ সৃষ্টি হবে : পুতিন

রয়টার্স

১৭ এপ্রিল ২০১৮,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট
ভøাদিমির পুতিন

ভøাদিমির পুতিন

সিরিয়ায় ফের পশ্চিমারা হামলা চালালে বিশ্বে গোলযোগ সৃষ্টি হবে বলে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে নিজের নাগরিকদের ওপর রাসায়নিক হামলার অভিযোগ এনে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পর রোববার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সাথে টেলিফোন আলাপে এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট।
ক্রেমলিনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, পশ্চিমাদের এই হামলা সিরিয়ায় সাত বছর ধরে চলমান গৃহযুদ্ধের অবসানে রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছানোর সম্ভাবনাকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে বলে পুতিন ও রুহানি একমত হয়েছেন। ভøাদিমির পুতিন বিশেষভাবে জোর দিয়েছেন, জাতিসঙ্ঘ সনদের লঙ্ঘন করে এই ধরনের পদক্ষেপ যদি অব্যাহত থাকে তাহলে অবশ্যই তা আন্তর্জাতিক পরিসরে গোলযোগ সৃষ্টি করবে। ওয়াশিংটন বলছে, এক সপ্তাহ আগে দোমায় রাসায়নিক হামলার জবাবে সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র কর্মসূচির প্রাণকেন্দ্রে এই হামলা চালানো হয়েছে। হামলায় অংশ নেয়া তিন দেশই দাবি করেছে, তাদের এই হামলার পেছনে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে উৎখাত বা দেশটির গৃহযুদ্ধে হস্তক্ষেপের অভিপ্রায় তাদের ছিল না।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সফল হয়েছে বলে প্রশংসা করলেও আগ্রাসন আখ্যায়িত করে এর নিন্দা জানিয়েছে দামেস্ক ও তার মিত্ররা। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই লাভরভ এই হামলাকে বলেছেন ‘অগ্রহণযোগ্য ও বেআইনি’।
তবে রোববার পুতিনের এই সতর্ক বার্তা আসার কিছুক্ষণ আগেই রাশিয়ার উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই রিবাকোভ বলেছেন, পশ্চিমাদের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে সব প্রচেষ্টা নেবে মস্কো। পশ্চিমা দেশগুলো জাতিসঙ্ঘে যে প্রস্তাব তুলছে তার সাথে রাশিয়া কাজ করবে কি না সে প্রশ্নের জবাবে তিনি তাস বার্তা সংস্থাকে বলেন, এখন রাজনৈতিক পরিস্থিতি খবুই উত্তেজনাপূর্ণ, পরিবেশ খুবই উত্তপ্ত। তাই আমি এ বিষয়ে কিছু বলব না। বর্তমানের অশান্ত পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে সব সুযোগ ব্যবহার করে আমরা শান্তভাবে ও পেশাদারিত্বের সাথে কাজ করব। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ভøাদিমির এরমাকোভ বলেছেন, ওই হামলার পর কৌশলগত স্থিতিশীলতা নিয়ে মস্কোর সাথে আলোচনায় বসতে চেয়েছে ওয়াশিংটন।
দামেস্ক রাসায়নিক অস্ত্র নিরোধ আন্তর্জাতিক সংস্থা-ওপিসিডব্লিউর পরিদর্শকদের সাথে বৈঠক করেছেন সিরিয়ার উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল মেকদাদ। রাশিয়া ও সিরিয়ার সিনিয়র নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে তিন ঘণ্টার ওই বৈঠক হয়।
দোমায় সন্দেহভাজন গ্যাস হামলাস্থল পরিদর্শন করার কথা ছিল ওপিসিডব্লিউর পরিদর্শকদের। সে পর্যন্ত অপেক্ষা না করে রাসায়নিক হামলার অভিযোগ তুলে সিরিয়ায় পশ্চিমাদের এই হামলার কঠোর সমালোচনা করছে মস্কো। তবে জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি সভায় সুবিধা করতে পারেনি রাশিয়া। সিরিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বে মিসাইল হামলার নিন্দা প্রস্তাব পাসও হয়নি। সিরিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বে ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্যের ক্রুজ মিসাইল হামলার পর জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠকের ডাক দিয়েছিল রাশিয়া। শনিবার নিউ ইয়র্কে সংস্থাটির সদরদফতরে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে হামলার ঘটনায় একটি নিন্দা প্রস্তাব পাসের আহ্বান জানিয়েছিল তারা। নিরাপত্তা পরিষদের সভায় রাশিয়ার বক্তব্য ছিল, যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা সিরিয়ায় হামলা চালিয়ে আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করেছে। তাই এই হামলার নিন্দা জানিয়ে অচিরেই সিরিয়ায় তাদের আগ্রাসন বন্ধ করতে হবে। কিন্তু তাদের সেই প্রস্তাব পাস করেনি নিরাপত্তা পরিষদ। কারণ পরিষদের ১৫ সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে শুধু চীন ও বলিভিয়া তাদের সমর্থন দিয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫