মালিতে জাতিসঙ্ঘের ঘাঁটিতে হামলা, নিহত ১৬

নয়া দিগন্ত অনলাইন

মালির ঐতিহ্যবাহী নগরী তিমবুকতুর উত্তরাঞ্চলে জাতিসঙ্ঘের ঘাঁটিতে হামলার ঘটনায় ১৬ জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ১৫ জন হামলাকারী আর একজন শান্তিরক্ষী। রোববার ফরাসী সেনাবাহিনী এএফপিকে একথা জানিয়েছে।

জাতিসঙ্ঘের এমআইএনইউএসএমএ বাহিনী জানিয়েছে, শনিবারের চার ঘণ্টাব্যাপী রকেট, গোলা ও গাড়ি বোমা হামলায় এর এক শান্তিরক্ষী নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় দুই বেসামরিক লোকসহ অপর সাতজন আহত হয়েছেন।

এমআইএসইউএসএমএ’র প্রধান মাহামাত সালেহ আনাদিফ শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের প্রশংসা করেছেন।

জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর প্রধান জেন-পিয়েরে লাকরোইক্স টুইটারে বলেন, ‘মালির শান্তি প্রতিষ্ঠায় দেশটির প্রতি আমাদের সমর্থন অটুট রয়েছে।’

ফরাসি সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র প্যাট্রিক স্টেইজার বলেন, হামলাকারীদের পরিকল্পনা নস্যাৎ করে দেয়া হয়েছে। তারা বড় ধরণের ক্ষতি করতে ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ‘এই ঘটনায় প্রায় ১৫ হামলাকারী নিহত হয়েছেন। কয়েকজন হামলাকারী শান্তিরক্ষী বাহিনীর ছদ্মবেশ নিয়ে ভেতরে ঢুকে পড়ে।’

নিরাপত্তা কর্মীদের নিজেদের মধ্যে গোলাগুলি হয়নি বলে তিনি নিশ্চত করেছেন।

এদিকে শনিবার মালির নিরাপত্তা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দুষ্কৃতকারীরা দুটি গাড়ি বোমা বিস্ফোরণের চেষ্টা করে। এদের মধ্যে একটি গাড়ির রঙ মালির সশস্ত্র বহিনীর মতো এবং অপরটিতে জাতিসঙ্ঘের লোগো ছিল।

মন্ত্রণালয় আরো জানায়, প্রথম গাড়ি বোমাটি বিস্ফোরিত হলেও সৈন্যরা অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দ্বিতীয় গাড়িটির বিস্ফোরণ ঠেকিয়ে দিয়েছে। তবে ফরাসী সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তিনটি গাড়ি বোমা ছিল।

প্যাট্রিক বলেন, ফরাসী ঘাঁটি থেকে যুদ্ধবিমান ও পার্শ্ববর্তী দেশ নাইজার থেকে হেলিকপ্টারে করে দ্রুত ঘটনাস্থলে এলিট সৈন্য পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

তিনি আরো বলেন, ‘ভোর নাগাদ পরিস্থিতি স্থিতিশীল হয়ে যায়।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.