ঢাকা, বুধবার,২৫ এপ্রিল ২০১৮

ঢাকা

গাজীপুর সিটি নির্বাচন : এক মেয়র প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল

মোহাম্মদ আলী ঝিলন, গাজীপুর

১৫ এপ্রিল ২০১৮,রবিবার, ২০:১৪ | আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৮,রবিবার, ২০:৩০


প্রিন্ট
গাজীপুর সিটি নির্বাচন : এক মেয়রের প্রার্থিতা বাতিল

গাজীপুর সিটি নির্বাচন : এক মেয়রের প্রার্থিতা বাতিল

গাজীপুর সিটি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের শুরুর দিন রোববার ১০ মেয়র প্রার্থীর মধ্যে নয়জনের প্রার্থিতা সঠিক এবং একজনের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।

নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. রকিব উদ্দিন মন্ডল জানান, দু'দিনব্যাপী মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের শুরুর দিনেই মেয়র পদে জমা পড়া ১০টি মনোনয়পত্র বাছাই শেষ হয়েছে। এতে ৯ জনের প্রার্থিতা সঠিক হলেও একজনের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে। প্রার্থিরা হলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপির প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার, জাসদের রাশেদুল হাসান রানা, ইসলামি ঐক্যজোটের মো. ফজলুর রহমান, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের নাসির উদ্দিন, ইসলামী ফ্রন্টের মো. জালাল উদ্দিন, কমিউনিস্ট পার্টির গাজী রুহুল আমিন, স্বতন্ত্র ফারিদ উদ্দিন ও গাজীপুর উন্নয়ন ফোরামের প্রার্থী মহানগর জামায়াতের আমীর মো. সানাউল্লাহ।

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের স্টাফ অফিসার ও নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. রেজাউল ইসলাম জনান, স্বতন্ত্রপ্রার্থী মো. আফছার উদ্দিনের সমর্থনকারী পাঁচজন ভোটারের স্বাক্ষর যাচাই করা হয়। এসময় একজন নিজে স্বাক্ষর করেননি বলে দাবি করেছেন। এছাড়া বাকি চারজনকে খুঁজে পাওয়া যায়নি এবং প্রার্থীও তাদের হাজির করতে পারেনি বলে তার প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. তারিফুজ্জামান জানান, মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন ১২ এপ্রিল পর্যন্ত ১০জন মেয়র প্রার্থী তাদের মনোয়নপত্র রিটার্নিং অফিসারের কাছে দাখিল করেন। ১৫ও ১৬এপ্রিল তা বাছাইয়ের দিন ধার্য ছিল। এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৯৪ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৮৭ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এসব কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলরের সংখ্যা বেশি হওয়া একদিনে তা বাছাই করার কাজ শেষ করা সম্ভব হয়নি। সোমবারের মধ্যে ওইসব বাছাই করা শেষ হবে।

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৩ এপ্রিল, প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে ২৪ এপ্রিল। আগামী ১৫ মে ভোট গ্রহণ করা হবে।

এদিকে বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা.মাজহারল আলম জানিয়েছেন, রবিবার সকাল ১০টায় গাজীপুর শহরের রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় বঙ্গতাজ অডিটোরিয়াম বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের মনোনয়নপত্রকে ত্রুটিমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময় বিএনপির মেয়র প্রার্থীর সাথে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও গাজীপুর জেলা বিএনপি সভাপতি ফজলুল হক মিলন, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা যুগ্মসম্পাদক ডা.মাজহারল আলম, গাজীপুর পৌর সভাপতি মীর হালিমুজ্জামান ননী, এড. মেহেদী হাসান এলিস,সাবেক ভিপি আশরাফ হোসেন বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম, ভিপি জয়নাল আবেদীন তালুকদার প্রমুখ।
রোববার বেলা ১১টার দিকে এছাড়া গাজীপুর মহানগর উন্নয়ন পরিষদ সমর্থিত স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নগর জামায়াতের আমির কেন্দ্রিয় কর্মপরিষদ সদস্য অধ্যক্ষ এস এম সানাউল্লাহর মনোনয়নপত্র ত্রুটিমুক্ত ঘোষণা করা হয়। যাচাই বাছাই শেষে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় মনোনয়নপত্র সঠিক বলে ঘোষণা করা হয়।

এর পরপরই বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকদের সাথে তিনি আসন্ন নির্বাচন ও গাজীপুর মহানগরীকে নিয়ে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা বিষয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী জাতীয় ও স্থানীয় সব ধরণের নির্বাচনে ধারাবাহিকভাবে অংশগ্রহণ করে আসছে। এরপরও নির্বাচন কমিশন উদ্দেশ্যেমূলকভাবে জামায়াতের নিবন্ধন আটকে দিয়েছে। তাই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবেই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। আশাকরি সার্বিক বিবেচনায় ২০ দল আমাকে সমর্থন দিবে। নির্বাচিত হলে নগরবাসীর স্বপ্ন পূরণে দেশের সর্ববৃহৎ সিটি কর্পোরেশন গাজীপুরকে একটি মডেল নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করবো ইনশাআল্লাহ।

এ সময় তার সাথে কাশিমপুর থানা জামায়াতের আমির আবু সিনা মামুন ও সেক্রেটারি নেছারউদ্দিন মাসুদ এবং কোনাবাড়ী থানা জামায়াতের আমীর জিয়াউর রহমান ও সেক্রেটারি ডাঃ কবির হোসেনের নেতৃত্বে বিপুল পরিমাণ সাধারণ জনতা গণসংযোগে অংশ নেন।

এদিকে রবিবার দুপুরে টঙ্গীর নতুন বাজার এলাকায় যাত্রীবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে কমপক্ষে চারজন নিহত ও বহু আহত হওয়ার ঘটনায় গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন গাজীপুর মহানগর জামায়াতের আমীর ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র প্রার্থী জননেতা অধ্যক্ষ এস এম সানাউল্লাহ।

অবিলম্বে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।
উল্লেখ্য, ৫৭টি সাধারণ ও ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল গত ৩১ মার্চ ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী, ১৫-১৬ এপ্রিল মনোনয়নপত্র বাছাই হবে। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৩ এপ্রিল। ভোট গ্রহণ হবে আগামী ১৫ মে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫