ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

রংপুর

মুক্তিযোদ্ধা কোটা অযৌক্তিক : এরশাদ

জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী)

১৪ এপ্রিল ২০১৮,শনিবার, ১৪:০০ | আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০১৮,শনিবার, ১৬:৩৬


প্রিন্ট
মুক্তিযোদ্ধা কোটা অযৌক্তিক : এরশাদ

মুক্তিযোদ্ধা কোটা অযৌক্তিক : এরশাদ

মুক্তিযোদ্ধা কোটা অযৌক্তিক। ছাত্ররা বিক্ষুব্ধ হয়েই আন্দোলনে গেছে। প্রধানমন্ত্রী এটা উপলব্ধি করতে পেরে কোটা বাতিল করেছেন। তবে আমার মনে হয় একবারে বাতিল করা ঠিক হবে না। তবে যদি এটা কম করে দেয়া হয় তাহলে ভালো হবে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এইচ এম এরশাদ। তিনি শনিবার রংপুরের কর্মী সম্মেলনে যাওয়ার পথে নীলফামারীর সৈয়দপুরের বাঙ্গালীপুর সরকারপাড়ায় সংসদ সদস্য শওকত চৌধুরীর বাসায় সাংবাদিকদের প্রশ্নোত্তরে উপরোক্ত কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচন হোক আমরাও চাই। নির্বাচন মানেই সিল মারা। নির্বাচন যদি সুষ্ঠু হয় তাহলে জাতীয় পার্টি বিপুলভাবে বিজয়ী হবে। আমরা কারো সাথে নেই বরং তারাই আমাদের সাথে। আমরা বিরোধী দল। আগামীতে আমরা এককভাবে নির্বাচন করবো এবং ৩ শ’ আসনে প্রার্থী দেবো। আমরা ছাড়াতো আর কোনো দল নাই। বিএনপি’র অবস্থা ছিন্ন ভিন্ন। তারা নির্বাচনে আসতে পারবে কিনা জানি না। আর সরকারের যে অবস্থা, সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে। আরো অনেক বিষয় ঘটছে। এ ব্যাপারে আমি কমেন্টস করি নাই। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় যাওয়ার পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনে জাপা প্রার্থী দেয়নি কেনো। এমন প্রশ্নের জবাবে এরশাদ বলেন, অর্থের অভাবে এবং ভালো প্রার্থী না পাওয়ায় প্রার্থী দেয়া হয়নি। রংপুরের সিটি নির্বাচনে আমরা ব্যাপকভাবে বিজয়ী হয়েছি। তাই খারাপ রেজাল্ট করতে চাই না। তাছাড়া এখন আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য জাতীয় নির্বাচন এবং লক্ষ্য হলো ক্ষমতায় যাওয়া।

এসময় সফর সঙ্গী হিসেবে জাতীয় পার্টির মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার ও সংসদ সদস্য শওকত চৌধুরী, কাজী ফিরোজ রশিদ এমপি, সৈয়দপুর উপজেলা যুব সংহতি’র আহ্বায়ক রওশন মাহানামা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫