ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৬ এপ্রিল ২০১৮

বিবিধ

যুক্তরাষ্ট্রের সাথে লড়াইয়ে প্রস্তুত রাশিয়া

ডেইলি মেইল

১৩ এপ্রিল ২০১৮,শুক্রবার, ১৬:১৭


প্রিন্ট
যুক্তরাষ্ট্রের সাথে লড়াইয়ে প্রস্তুত রাশিয়া

যুক্তরাষ্ট্রের সাথে লড়াইয়ে প্রস্তুত রাশিয়া

সিরিয়ায় মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসের প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজগুলো। সম্ভাব্য মার্কিন হামলা প্রতিরোধ ও পাল্টা জবাব দিতে সিরিয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ নৌঘাটি থেকে যুদ্ধজাহাজগুলোকে সুবিধাজনক অবস্থানে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ব্যাপারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুশিয়ারির পরই যুদ্ধজাহাজগুলো সরিয়ে নেয়া হয়। ভূমধ্যসাগরের সিরিয়ার উপকূলে দেশটির তারতুস সামরিক বন্দরে মোতায়েন ছিল রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ অ্যাডমিরাল গ্রিগরোভিচসহ ১১টি যুদ্ধজাহাজ।

তারতুস বন্দর থেকে যুদ্ধজাহাজগুলো সরে গিয়ে ভূমধ্যসাগরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে। বন্দরটিতে মোতায়েন রাখা হয়েছে কিলো শ্রেণীর একটি সাবমেরিন। যুদ্ধজাহাজগুলোর প্রতিরক্ষায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে মস্কোর অপ্রতিরোধ্য ও ভয়ঙ্কর এস-৩০০ ও এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। গত এক বছর ধরে এগুলো সিরিয়ার উপকূলে মোতায়েন রাখা হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত মঙ্গলবার সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার জন্য রাশিয়াকে প্রস্তুত থাকার জন্য হুশিয়ারি দেন। এক টুইটার বার্তায় তিনি বলেন, প্রস্তুত থাকো রাশিয়া। সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র আসছে।এর পাল্টা জবাবে ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে বলা হয়, সিরিয়ায় মার্কিন যেকোনো ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত করা হবে এবং একই সঙ্গে যেখান থেকে হামলা চালানো হবে পাল্টা সেখানে আঘাত হানা হবে। এর একদিন পরেই ভূমধ্যসাগরে নিজেদের যুদ্ধজাহাজগুলোকে উপযুক্ত স্থানে মোতায়েন করে মস্কো।

আসাদের সুরক্ষায় এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দিয়ে ‘দুর্ভেদ্য নিরাপত্তা বলয়’ গড়ে তুলেছে রাশিয়া। মস্কোর এই সামরিক প্রযুক্তি ২৪৮ মাইল দূর থেকেও একবারে ৮০টি বিমান ধ্বংস করতে সক্ষম। এ কারণেই এটাকে বলা হচ্ছে ‘বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর অস্ত্র’। প্রতিপক্ষের মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রসহ যুদ্ধবিমান, ক্রুজ ও ব্যালিস্টিক মিসাইলও ধ্বংস করতে সক্ষম এটা। ভূমিতেও যেকোনো লক্ষ্যবস্তুতে নির্ভুল আঘাত হানতে পারে বলে এর খ্যাতি রয়েছে।

রাশিয়ার সীমান্তজুড়ে মোতায়েন রয়েছে এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। দেশের বাইরে ২০১৫ সালে সিরিয়ার একটি ঘাঁটিতে প্রথম মোতায়েন করা এটা। এস-৪০০-এর আঘাত থেকে বাঁচতে সিরিয়ায় নিরাপদ দূরত্ব থেকে হামলা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের বিমানগুলো। তবে রাশিয়ার হাতে রয়েছে সুখোই সু মডেলের অগণিত যুদ্ধবিমান; এসবের হাত থেকে রেহাই নেই পশ্চিমা যুদ্ধবিমানগুলোর।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫