ads

ঢাকা, শনিবার,২১ এপ্রিল ২০১৮

চট্টলা সংবাদ

পোর্ট সিটি ভার্সিটির নবনিযুক্ত শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা

চট্টগ্রাম ব্যুরো

১২ এপ্রিল ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির নবনিযুক্ত শিক্ষকদের সাত দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে। ব্যবসায় প্রশাসন, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং, আইন, ইংরেজি, সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়নসহ বিভিন্ন বিভাগে নবনিযুক্ত তিনজনসহ মোট ১৩ জন শিক্ষক কর্মশালায় অংশ নেন। সামার-২০১৮ সেশনের কাস শুরুকে সামনে রেখে এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। ফ্যাকাল্টি ট্রেনিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও অ্যাকাডেমিক অ্যাডভাইজার প্রফেসর ড. এম মুজিবুর রহমান। কর্মশালায় তিনি বলেন, উচ্চ মানসম্পন্ন শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেয়া দরকার। নতুন শিক্ষকদের লেশন প্যানিংয়ের ক্ষেত্রে এ প্রশিক্ষণ কর্মশালা বেশ উপকারী। তিনি শ্রেণীকক্ষে শিক্ষকদের যুগোপযোগী ও গবেষণামূলক শিক্ষা দেয়ার জন্য আহ্বান জানান। কর্মশালায় প্রথম দিনের ট্রেনিং সেশন পরিচালনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও অ্যাকাডেমিক অ্যাডভাইজার এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. এম মুজিবুর রহমান। তিনি ‘টিচিং ফিলোসফি অ্যান্ড টেকনিকস’ ‘কোড অব কন্ডাক্ট’ এবং ‘ইফেকটিভ কাস রুম ম্যানেজমেন্ট’র ওপর প্রশিক্ষণ দেন। সাত দিনব্যাপী এ কর্মশালায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিজ্ঞ শিক্ষকেরা বিভিন্ন বিষয়ের ওপর তাদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরবেন। এ কর্মশালার সমন্বয়ক হিসেবে ছিলেন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সিনিয়র লেকচারার ও সেন্টার ফর ট্রেনিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের কো-অর্ডিনেটর মো: মাহফুজুর রহমান। এ সময় অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য এহসানূল হক রিজন, ফ্যাকাল্টি অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার মফজল আহম্মেদ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো: সেলিম হোসেন।

 

ads

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫