ফেঁসে যাচ্ছেন ট্রাম্প!
ফেঁসে যাচ্ছেন ট্রাম্প!

ফেঁসে যাচ্ছেন ট্রাম্প!

বিবিসি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দীর্ঘ দিনের ব্যক্তিগত আইনজীবী মাইকেল কোহেনের দপ্তরে অভিযান চালিয়েছে ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন বা এফবিআই।

২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের রাশিয়ার ভূমিকা নিয়ে তদন্তকারী বিশেষ কৌসুলি রবার্ট মুয়েলারের তদন্তের অংশ হিসাবেই এই অভিযান বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জানিয়েছেন।

নিউইয়র্কের ওই কার্যালয় থেকে কোহেন আর তার গ্রাহকদের সঙ্গে যোগাযোগের অনেক নথিপত্র জব্দ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মার্কিন গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, এসব নথিপত্রের মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক চলচ্চিত্রের এক তারকাকে অর্থপ্রদান সম্পর্কিত কাগজপত্রও রয়েছে।

২০১৬ সালের মার্কিন রাষ্ট্রপতির নির্বাচনের একদিন আগে পর্ন তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার দিয়েছিলেন বলে স্বীকার করেছেন কোহেন। এরপরই তিনি সবার আলোচনায় উঠে আসেন।

মিজ ড্যানিয়েলসের দাবি, স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প প্রথম সন্তানের জন্ম দেয়ার পরপর ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তার যৌন সম্পর্ক হয়েছিল এবং সেই কথা চেপে রাখার জন্যই তাকে অর্থ দেয়া হয়েছিল।

মাইকেল কোহেনের আইনজীবী স্টিফেন এম রায়ান একটি বিবৃতিতে বলেছেন, ''আমাকে ফেডারেল আইনজীবীরা জানিয়েছেন যে, এটা বিশেষ তদন্তকারী রবার্ট মুয়েরারের তদন্তের অংশ হিসাবেই এই অভিযান চালানো হয়েছে।''

তবে এটি 'অসংগত' আর 'অপ্রয়োজনীয়' বলে তিনি দাবি করেন, কারণ তার মতে, কোহেন বরাবরই সরকারকে সহযোগিতা করে আসছিলেন।

হোয়াইট হাউস ছাড়ছেন ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা মুখপাত্র
এএফপি
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র মাইকেল অ্যান্টোন প্রশাসন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
রোববার হোয়াইট হাউস একথা জানিয়েছে। খবর সিনহুয়ার।
সোমবার ট্রাম্পের তৃতীয় জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে এ পদে সাবেক চৌকস কূটনীতিক জন বোল্টন দায়িত্ব নেয়ার একদিন আগে এমন ঘোষণা দেয়া হলো।

রোববার এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, ‘মাইকেল চমৎকার মানুষ। আমি প্রতিদিন তার সঙ্গে ভালভাবে কাজ করেছি। আমি গভীরভাবে তার অভাব অনুভব করবো।’
মাইকেল অ্যান্টোন কখন হোয়াইট হাউস ছাড়ছেন সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলা হয়নি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.