ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

গৃহস্থালি

বৈশাখে অন্দর সাজ

গুলশান নাসরীন চৌধুরী

০৯ এপ্রিল ২০১৮,সোমবার, ১৫:২২


প্রিন্ট
বৈশাখে অন্দর সাজ

বৈশাখে অন্দর সাজ

পয়লা বৈশাখ আমাদের প্রাণের উৎসব। বাঙালির ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির অন্যতম অংশ নতুন বছরের এ দিনটি উপলক্ষে আপনার অন্দরকেও সাজিয়ে তুলতে পারেন বাঙালিয়ানার আমেজে।

কয়েক দিন পরই পয়লা বৈশাখ। বাঙালির প্রাণের উৎসব। বছর ঘুরে আবার এই প্রাণের উৎসবে ধর্ম-বর্ণের ভেদাভেদ ভুলে মেতে উঠবে গোটা বাঙালি জাতি। তবে আনন্দ কি শুধুই ঘরের বাইরে হবে? মোটেও নয় বরং এদিন নিজের ঘরটিও রাঙিয়ে দিতে পারেন উৎসবের রঙে। এ জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে আগে থেকেই। অন্দরে বৈশাখী আমেজ আনতে কি করে সাজাবেন আপনার বাড়ি সে বিষয়ে জানাচ্ছেন রেডিয়েন্ট ইনস্টিটিউট অব ডিজাইনের কর্ণধার ।

ষ আমাদের দেশীয় উপকরণে তৈরি বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে আমরা ঘর সাজাতে পারি।
ষ বাঁশ ও বেত দিয়ে তৈরি বিভিন্ন আসবাবে সাজাতে পারেন আপনার অন্দর। এতে ঘরের সাজে শুধু নতুনত্বই আসবে না, আপনার শিল্পবোধও হবে প্রশংসিত।

ষ আজকাল পাট দিয়ে তৈরি হচ্ছে অসংখ্য পণ্য। এসবের মধ্য থেকে গৃহস্থালির বিভিন্ন পণ্য যেমন- কার্পেট, ম্যাট, শোপিস, ওয়াল হ্যাঙিংসহ বিভিন্ন পণ্য বেছে নিতে পারেন অন্দর সাজে।
ষ ঘরের পর্দা হতে পারে দেশী কাপড়ের- চেক, সুতি, বাটিক ইত্যাদি। সোফার কুশনের ক্ষেত্রেও একই কাপড় বেছে নেয়া যেতে পারে।

পর্দা, বিছানার চাদর অথবা কুশনের রঙ হিসেবে বেছে নিন হলুদ, সবুজ অথবা লাল ফাগুনের রঙগুলো।
ষ পয়লা বৈশাখের সঙ্গে মুখোশের একটি ঐতিহ্য রয়েছে তা ফুটিয়ে তুলতে বসার ঘরে রাখতে পারেন বর্ণিল মুখোশ।

ষ পয়লা বৈশাখে খাবার টেবিলে থাকে ঐতিহ্যবাহী বাঙালি খাবার যার মধ্যে পান্তা-ইলিশ অপরিহার্য। খাবারের সাথে টেবিলেও থাকা চাই দেশী ঐতিহ্যের ছোঁয়া। এ ক্ষেত্রে ক্রোকারিজ হতে পারে মাটির, যেমন মাটির প্লেট, কাপ, পিরিচ ও গ্লাস। এছাড়া পিতল বা কাঁসাও বেছে নিতে পারেন।
মাটির পাত্রে কলাপাতা বিছিয়ে সাজিয়ে রাখতে পারেন ইলিশ ভাজা। দরজা, ঘর ও খাবার টেবিলের একটি ফুলদানিতে সাজিয়ে রাখতে পারেন রজনীগন্ধা, পলাশ বা শিমুলের মতো দেশী ফুল।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫