ঢাকা, বুধবার,২৫ এপ্রিল ২০১৮

দিগন্ত জবস

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরে ৪৮০ জন নিয়োগ

৩১ মার্চ ২০১৮,শনিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের রাজস্ব খাতে অস্থায়ী ভিত্তিতে নিচে বর্ণিত পদে নিয়োগের জন্য বাংলাদেশী
অবিবাহিত নাগরিকদের কাছ থেকে অনলাইনে আবেদন আহ্বান করা হয়েছে। অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ও সময় : ১৫ এপ্রিল ২০১৮, বিকেল ৫টা পর্যন্ত।
লিখেছেন
মাহমুদ কবীর
পদের নাম : স্টেশন অফিসার (শুধু পুরুষ প্রার্থীদের জন্য)।
পদের সংখ্যা : ৬২টি।
আবেদনের যোগ্যতা : স্নাতক ডিগ্রি বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা। শারীরিক যোগ্যতা : উচ্চতা : ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি ন্যূনতম, বুক : ৩২ ইঞ্চি ন্যূনতম, ওজন : ১১০ পাউন্ড ন্যূনতম, ত্রুটিমুক্ত শারীরিক গঠন।
বেতন স্কেল : ১১০০০-২৬৫৯০/-
পদের নাম : স্টাফ অফিসার।
পদের সংখ্যা : ২৪টি।
আবেদনের যোগ্যতা : স্নাতক ডিগ্রি বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা। শারীরিক যোগ্যতা : উচ্চতা : ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি ন্যূনতম, বুক : ৩২ ইঞ্চি ন্যূনতম, ওজন : ১১০ পাউন্ড ন্যূনতম, ত্রুটিমুক্ত শারীরিক গঠন।
বেতন স্কেল : ১১০০০-২৬৫৯০/-
পদের নাম : জুনিয়র প্রশিক্ষক (ট্রেনিং কমপ্লেক্স)।
পদের সংখ্যা : ১টি।
আবেদনের যোগ্যতা : স্নাতক ডিগ্রি বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা। শারীরিক যোগ্যতা : উচ্চতা : ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি ন্যূনতম, বুক : ৩২ ইঞ্চি ন্যূনতম, ওজন : ১১০ পাউন্ড ন্যূনতম, ত্রুটিমুক্ত শারীরিক গঠন।
বেতন স্কেল : ১১০০০-২৬৫৯০/-
পদের নাম : ফায়ারম্যান (পুরুষ)।
পদের সংখ্যা : ৩৮৭টি।
আবেদনের যোগ্যতা : স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষা বোর্ড হতে কমপক্ষে এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।
বেতন স্কেল : ৮৮০০-২১৩১০/-
পদের নাম : ডুবুরি (পুরুষ)।
পদের সংখ্যা : ১টি।
আবেদনের যোগ্যতা : স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষা বোর্ড হতে কমপক্ষে এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।
বেতন স্কেল : ৮৮০০-২১৩১০/-
পদের নাম : নার্সিং অ্যাটেনডেন্ট (পুরুষ)।
পদের সংখ্যা : ৫টি।
বেতন স্কেল : ৮৮০০-২১৩১০/-
আবেদনের যোগ্যতা : স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষা বোর্ড হতে কমপক্ষে এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।
উপরি উক্ত ৩টি পদের শারীরিক যোগ্যতা : উচ্চতা : ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি ন্যূনতম, বুক : ৩২ ইঞ্চি ন্যূনতম। শারীরিক গঠন ত্রুটিমুক্ত হতে হবে।
যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন : সব জেলা।
বয়সসীমা : প্রার্থীর বয়সসীমা ০১/০৩/২০১৮ তারিখে ১৮ থেকে ৩০ বছর হতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা/ শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার ক্ষেত্রে বয়সের ঊর্ধ্বসীমা ৩২ বছর। মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের সন্তানদের ক্ষেত্রে বয়সের ঊর্ধ্বসীমা ৩০ বছর। বয়সের ক্ষেত্রে কোনো এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য নয়। সরকারি, আধা-সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে চাকরিরত প্রার্থীদের অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে আবেদন করতে হবে এবং মৌখিক পরীক্ষার সময় তা দেখাতে হবে।
জরুরি তথ্য : একই ব্যক্তির একাধিক পদে আবেদন করার প্রয়োজন নেই। এ ছাড়া ক্রমিক নম্বর ২ ও ৩-এ বর্ণিত পদ ছাড়া অন্য পদে মহিলা-প্রার্থীদের আবেদন করার প্রয়োজন নেই।
মৌখিক পরীক্ষার সময় যেসব কাগজপত্র দেখাতে হবে : মৌখিক পরীক্ষার সময় সব সনদপত্রের মূলকপি দেখাতে হবে এবং অঢ়ঢ়ষরপধঃরড়হ ভড়ৎসসহ সত্যায়িত এক সেট ফটোকপি জমা দিতে হবে। এ ছাড়া জেলার স্থায়ী বাসিন্দার প্রমাণ হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা/সিটি করপোরেশন কর্তৃক প্রদত্ত সনদ এবং আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা, পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা হলে তার সপক্ষে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/ সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর/পৌরসভার মেয়র/পৌরসভার কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত সনদের ১ সেট সত্যায়িত ফটোকপি জমা দিতে হবে।
মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আবেদনকারীদের ক্ষেত্রে তার সপক্ষে গেজেটসহ মুক্তিযোদ্ধা সংক্রান্ত মূল সনদ মৌখিক পরীক্ষার সময়ই দেখাতে হবে এবং ১ সেট সত্যায়িত ফটোকপি জমা দিতে হবে। বিশেষ কোটার ক্ষেত্রে যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত সনদ মৌখিক পরীক্ষার সময় দেখাতে হবে এবং ১ সেট সত্যায়িত ফটোকপি জমা দিতে হবে। আবেদনকারী যে কোটায় আবেদন করবেন তা আবেদনপত্রে উল্লেখ করতে হবে, যেমনÑ এতিম, মুক্তিযোদ্ধা মহিলা, আনসার ও ভিডিপি, ক্ষুদ্র ও নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী।
এতিম প্রার্থীদের বেলায় রেজিস্টার্ড এতিমখানার নিবাসী হতে হবে এবং এতিমখানার নিবাসী সনদপত্র সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত হতে হবে।
লিখিত পরীক্ষা ও পরীক্ষার তারিখ : সব পদের জন্য শারীরিক যোগ্যতা যাচাই, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। শারীরিক যোগ্যতা যাচাই, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণের তারিখ, সময় ও স্থান ঝগঝ-এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের ওয়েবসাইটে (িি.িভরৎবংবৎারপব.মড়া.নফ) প্রকাশ করা হবে।
জেনে রাখুন : ফায়ারম্যান পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে গাড়ি চালনায় হালকা ড্রাইভিং লাইসেন্সধারীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ করা : পরীক্ষায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক ব্যক্তি যঃঃঢ়://ভংপফ.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ এই ওয়েবসাইটে আবেদনপত্র পূরণ করতে পারবেন।
অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ও সময় : ১৫ এপ্রিল ২০১৮, বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ওই সময়সীমার মধ্যে টংবৎ ওউ প্রাপ্ত প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ-এর সময় থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এসএমএসে পরীক্ষার ফি জমা দিতে পারবেন। অনলাইন আবেদনপত্রে প্রার্থী তার স্বাক্ষর (দৈর্ঘ্য ৩০০´ প্রস্থ ৮০ চরীবষ) ও রঙিন ছবি (দৈর্ঘ্য ৩০০ ´ প্রস্থ ৩০০ ঢ়রীবষ) স্ক্যান করে নির্ধারিত স্থানে টঢ়ষড়ধফ করবেন। অনলাইন আবেদনপত্রে পূরণকৃত তথ্যই যেহেতু পরবর্তী সব কার্যক্রমে ব্যবহৃত হবে, সেহেতু অনলাইনে আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ করার আগেই পূরণকৃত সব তথ্যের সঠিকতা সম্পর্কে প্রার্থী নিজে শতভাগ নিশ্চিত হবেন। প্রার্থী অনলাইনে পূরণকৃত আবেদনপত্রের একটি রঙিন প্রিন্টকপি পরীক্ষা সংক্রান্ত যেকোনো প্রয়োজনে সংরক্ষণ করবেন।
ঝগঝ পাঠানো ও পরীক্ষার ফি দেয়া : অনলাইনে আবেদনপত্র যথাযথভাবে পূরণ করে নির্দেশনা মতো ছবি এবং স্বাক্ষর ঁঢ়ষড়ধফ করে আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ করা সম্পন্ন হলে কম্পিউটারে ছবিসহ অঢ়ঢ়ষরপধঃরড়হ চৎবারবি দেখা যাবে। নির্ভুলভাবে আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ করা সম্পন্ন প্রার্থী একটি টংবৎ ওউ, ছবি এবং স্বাক্ষরযুক্ত একটি অঢ়ঢ়ষরপধহঃ’ং ঈড়ঢ়ু পাবেন। ওই অঢ়ঢ়ষরপধহঃ’ং ঈড়ঢ়ু প্রার্থী উড়হিষড়ধফ পূর্বক রঙিন প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করবেন। অঢ়ঢ়ষরপধহঃ’ং কপিতে একটি টংবৎ ওউ নম্বর দেয়া থাকবে এবং টংবৎ ওউ নম্বর ব্যবহার করে প্রার্থী যেকোনো টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে দু’টি ঝগঝ করে পরীক্ষার ফি বাবদ ১ থেকে ৩ ক্রমিক নম্বর পর্যন্ত বর্ণিত পদের প্রার্থী ১০০ টাকা ও ক্রমিক ৪ থেকে ৬ নম্বর পর্যন্ত বর্ণিত পদের জন্য ৫০ টাকা অনধিক ৭২ ঘণ্টার মধ্যে জমা দেবেন। অনলাইনে আবেদনপত্রের সব অংশ পূরণ করে ঝঁনসরঃ করা হলেও পরীক্ষার ফি জমা না দেয়া পর্যন্ত অনলাইন আবেদনপত্র কোনো অবস্থাতেই গৃহীত হবে না।
প্রবেশপত্র প্রাপ্তি : প্রবেশপত্র প্রাপ্তির বিষয়টি যঃঃঢ়://ভংপফ.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ ওয়েবসাইটে এবং প্রার্থীর মোবাইল ফোনে ঝগঝ-এর মাধ্যমে (শুধু যোগ্য প্রার্থীদের) যথাসময়ে জানানো হবে। অনলাইন আবেদনপত্রে প্রার্থীর প্রদত্ত মোবাইল ফোনে পরীক্ষা সংক্রান্ত যাবতীয় যোগাযোগ সম্পন্ন করা হবে বিধায় ওই নম্বরটি সার্বক্ষণিক সচল রাখা, ঝগঝ পড়া এবং প্রাপ্ত নির্দেশনা পড়তে হবে। ঝগঝ-এ প্রেরিত টংবৎ ওউ এবং চধংংড়িৎফ ব্যবহার করে পরে রোল নম্বর, পদের নাম, ছবি, পরীক্ষার তারিখ, সময় ও স্থানের/ কেন্দ্রের নাম ইত্যাদি তথ্যসংবলিত প্রবেশপত্র প্রার্থী উড়হিষড়ধফ পূর্বক রঙিন প্রিন্ট করে নেবেন। প্রার্থী প্রবেশপত্রটি লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সময়ে এবং উত্তীর্ণ হলে মৌখিক পরীক্ষার সময়ে অবশ্যই দেখাবেন।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫