মধ্যরাতে ঢাবি ছাত্রদের বিােভ-ভাঙচুর

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

ক্যাম্পাস থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীকে তুলে নেয়ার অভিযোগে টিএসসি অবরোধ করে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি হলের শিক্ষার্থীরা। গত রাত ১১টায় এ ঘটনা ঘটে। এর আগে রাত ১০টায় কলা ভবনের মূল গেটের বিপরীত পাশের রাস্তায় মারধর করে র‌্যাব তাদের তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।
তুলে নেয়া তিন ছাত্র হলেনÑ তৃতীয় বর্ষের ছাত্র কাজী তানভীর (বিজয় একাত্তর হল ছাত্রলীগের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাবিষয়ক সম্পাদক), ইমরান হোসেন (সূর্যসেন হল ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক), মুসলিম উদ্দিন হিমেল (মোহাম্মাদপুর কেন্দ্রীয় কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী)। এ দিকে এই তিন ছাত্রকে রাত ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান নীলক্ষেত পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সাহেব আলী।
বিক্ষোভকারী ছাত্ররা জানান, ‘টিএসসি থেকে নীলক্ষেত সড়কের দিকে যাওয়ার পথে একটি কালো গ্লাসের মাইক্রোবাসের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের একটি বাইকের সংঘর্ষ হয়। পরে ছাত্ররা মাইক্রোবাসের গতিরোধ করে এবং চালককে গাড়ি থেকে নামতে বলে। কিন্তু সে না নামায় বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা গাড়ির লুকিং গ্লাস ভেঙে ফেলে। এতে গাড়ির আরোহী র‌্যাব সদস্যরা বেরিয়ে এসে তাদের আটক করে নিয়ে যায়।
এ দিকে, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই সহকারী প্রক্টর এবং প্রক্টরিয়াল টিম। এ সময় শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করতে শুরু করেন। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের পথে আগত বিভিন্ন রুটের গাড়ি আটকাতে থাকেন। রাত ১১টায় টিএসসি অবরোধ করে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন। এ সময় র‌্যাব-৪-এর একটি গাড়ি টিএসসি এলে সেটিকেও ধাওয়া দেন বিক্ষুব্ধরা। পরে গাড়িটি দ্রুত টিএসসির ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের বুথের সামনে দিয়ে ইউটার্ন নিয়ে দ্রুত সরে যায় তারা। পরে ছাত্রলীগ নেতারা ঘটনাস্থলে এসে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের নিবৃত্ত করেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, ছাত্ররা বর্তমানে হলে আছে। পুরো বিষয়টি সম্পর্কে আমরা জেনে ব্যবস্থা নেবো।
বিডি নিউজ জানায়, এ বিষয়ে জানতে চাইলে র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘রাতে বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন কাঁটাবন এলাকায় মোটরসাইকেল আরোহী দু-তিনজন তরুণ যানজটে পড়ে। সেখানে রাস্তার পাশে র‌্যাবের একটি মাইক্রোবাস ও একটি স্টিকারহীন প্রাইভেটকার দাঁড়িয়েছিল। ওই তরুণেরা এসে একটি গাড়ির গ্লাস ভেঙে দেয়।
‘তখন র‌্যাব সদস্যরা এসে গ্লাস ভাঙার কারণ জানতে চাইলে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিার্থী পরিচয় দেয়। কেন গ্লাস ভেঙেছে জানতে চাইলে বলেছে, এটা র‌্যাবের গাড়ি তা তারা জানত না।’
ওই শিার্থীদের আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তারা ওই গ্লাস মেরামত করে দিতে চেয়েছে। সে বিষয়ে তাদের সাথে আলোচনা চলছে।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.