গঙ্গার পানির সুষ্ঠু ব্যবহার না করলে পরিণতি ভয়াবহ : পরিবেশ মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, গঙ্গার পানির সুষ্ঠু ব্যবহার না করা গেলে দেশের এক-তৃতীয়াংশ জনগোষ্ঠীর পরিণতি গুরুতর হবে। তিনি বলেন, চুক্তি করে পানি আনা হলো কিন্তু তার সুষ্ঠু ব্যবহার হচ্ছে না। এ নিয়ে কারো উচ্চবাচ্যও নেই। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) ও এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ আয়োজিত এক সেমিনারে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমেদ এতে সভাপতিত্ব করেন। বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ও এনভায়রনমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. এম আশরাফ আলী এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। বক্তব্য রাখেস পিকেএসএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: আবদুল করিম ও এনজিও ফোরামের নির্বাহী পরিচালক এস এম এ রশীদ।
মন্ত্রী বলেন, গঙ্গাচুক্তির আগে অনেক লেখালেখি হতোÑ নদীর পানি না পেলে বাংলাদেশের অনেক ক্ষতি হবে। কিন্তু এখন চুক্তির পর এ নদীর পানি ব্যবহার নিয়ে লেখালেখি নেই। তিনি বাংলাদেশের পানি সমস্যা সমাধানের জন্য নীতিনির্ধারক, সিভিল সোসাইটি ও জনগণের সমন্বিত পরিকল্পনার বিষয়ে গুরুত্ব দেন।
এ দিকে পবা কার্যালয়ে এক গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা পানি সঙ্কট মোকাবেলায় প্রকৃতিভিত্তিক সমাধানে সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন। তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের পাশাপাশি পরিবেশগত বিপর্যয়ের ফলে বিশ্বজুড়ে পানি সঙ্কট তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে।
এ ছাড়াও বিশ্বব্যাপী মানুষের পরিবেশ বিরূপ কর্মকাণ্ডের কারণে বনভূমি, কৃষিভূমি, নদ-নদী ও জলাভূমি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ফলে বন্যা, খরা, পানির স্বল্পতা এবং পানি দূষণ প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে। পানি সঙ্কট মোকাবেলায় প্রকৃতিভিত্তিক সমাধানের গুরুত্ব শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) চেয়ারম্যান আবু নাসের খান সভাপতিত্ব করেন। পবার সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো: আবদুস সোবহানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনায় বৈঠকে বক্তব্য রাখেন, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞান অনুষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কামরুজ্জামান মজুমদার, পবার সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ উজ্জ্বল, নাসফের সাধারণ সম্পাদক মো: তৈয়ব আলী ও সহসাধারণ সম্পাদক অলিভা পারভীন, বাংলাদেশ নিরাপদ পানি আন্দোলনের সভাপতি প্রকৌশলী মো: আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এম এ ওয়াহেদ, সেতু সঙ্ঘের প্রতিষ্ঠাতা মো: ইলিয়াস হায়দার, ডাব্লিউবিবি-ট্রাস্টের প্রকল্প কর্মকর্তা শুভ কর্মকার, বিসিএইচআরডির পরিচালক মো: মমতাজুর রহমান মোহন, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞানের ছাত্র নাসির আহমেদ পাটোয়ারী প্রমুখ।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.