ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

নগর মহানগর

কৃষকদের অধিকার রক্ষায় কৃষি আদালত গঠন করতে হবে : মেনন

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ মার্চ ২০১৮,বুধবার, ০০:৩৭


প্রিন্ট

সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ভূমি সংস্কার কমিশন গঠন এবং কৃষি শ্রমের মজুরি আইন তৈরি হলেও তা বাস্তবায়ন করা হয়নি। দিন দিন কৃষি জমি কমে যাচ্ছে এবং নগরায়ন হচ্ছে। এতে খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়টি আরো প্রকট হতে পারে। তাই খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়টির ওপর অবশ্যই জোর দিতে হবে। এ ক্ষেত্রে কৃষকদের অধিকার রক্ষায় কৃষি আদালত গঠন করতে হবে।
আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে ‘গ্রামীণ কৃষকের বর্তমান অবস্থা’ শীর্ষক এক সেমিনারে রাশেদ খান মেনন এ কথা বলেন। মানবাধিকার নেত্রী খুশী কবির এতে সভাপিতত্ব করেন।
এতে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. আবুল বারাকাত উল্লিখিত বিষয়ের ওপরে সম্প্রতি যে গবেষণা অনুষ্ঠিত হয়েছে তার প্রতিবেদনের ওপরে একটি উপস্থাপনা তুলে ধরেন।
অপর দিকে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেন, মালিক, কৃষক এবং উৎপাদনের মধ্যে অনেক জটিলতা রয়েছে। এই সব জটিলতা দূরীকরণের জন্য উপজেলা পর্যায়ে ‘কৃষি আদালত’ তৈরি করতে হবে।
নেদারল্যান্ডস দূতাবাস, ঢাকার ডেপুটি হেড অব মিশন এরোইন স্টিগস বলেন, কৃষি অর্থনৈতিক উন্নয়নের একটি প্রধান ক্ষেত্র। সব সুবিধাভোগীদের নিয়ে সমানের দিকে অগ্রসর হওয়ার জন্য এই সেক্টরে ডাচ সরকার বাংলাদেশে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।
কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য লাকী আক্তার বলেন, সার্বিকভাবে বলা যায় কৃষি এখন কৃষকের হাত ছাড়া হয়ে যাচ্ছে।
এএলআরডির নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদা বলেন, কৃষকদের মর্যাদা দিতে হবে। কৃষকের প্রতিনিধিত্ব হতে হবে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে।
ডাচ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ইকো কো-অপারেশনের সহায়তায় সিভিক এনগেজমেন্ট এলায়েন্স কার্যক্রমের আওতায় বেসরকারি সংস্থা নিজেরা করি, এএলআরডি এবং এইচডিআরসি কর্তৃক আয়োজিত সেমিনারে আদিবাসী ককাসের আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি এবং গাইবান্ধার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি এবং নেদারল্যান্ডস দূতাবাস, ঢাকার ডেপুটি হেড অব মিশন এরোইন স্টিগস বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫