ওয়াইফাই রাউটার আরো দ্রুতগতির করবেন যেভাবে
ওয়াইফাই রাউটার আরো দ্রুতগতির করবেন যেভাবে

ওয়াইফাই রাউটার আরো দ্রুতগতির করবেন যেভাবে

আহমেদ ইফতেখার

ইন্টারনেটের প্রসার হচ্ছে প্রতিনিয়তই। একটি নির্দিষ্ট জায়গায় ইন্টারনেট প্রসারের অন্যতম মাধ্যম হলো রাউটার। বাসাবাড়ি বা অফিসে আমরা নির্দিষ্ট দূরত্বের মধ্যে এখন সবাই কম-বেশি ওয়াইফাই ব্যবহার করছি। তবে শুরুতে ওয়াইফাইয়ের ব্যবহার ভালো লাগলেও কিছু দিন পরই ওয়াইফাইয়ের গতি ধীর হয়ে যায়। কারণ ওয়াইফাই হলো রেডিও তরঙ্গ, যা সামান্য দূরত্বে ছড়িয়ে পড়ে এবং স্মার্টফোন ল্যাপটপের মতো ডিভাইসে তা গ্রহণ করে। তরঙ্গ ছড়িয়ে পড়ার মাঝে বাধা পড়লে তা ধীরগতির তো হবেই। কাজেই হতাশ না হয়ে কিছু বিষয় মেনে চললে ওয়াইফাইয়ের ধীরগতি সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

আপনার ঘরের মেঝেতে ওয়াইফাই রাউটার রাখবেন না। রাউটার এমনভাবে বানানো হয়, যেন তা তরঙ্গ একটু নিচের দিকে ছড়িয়ে দেয়। কাজেই মেঝেতে থাকা রাউটার থেকে তরঙ্গ ওপরের দিকে খুব বেশি ছড়াবে না। ফলে আপনার ডিভাইসগুলো ধীরগতির ইন্টারনেট পাবে। তাই একে একটু উঁচু স্থানে রাখুন। 

দামি রাউটারটাকে ধুলোবালি, পানি বা ভেঙে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে হয়তো আলমিরা বা কোথাও লুকিয়ে রাখবেন। এ কাজটা করলেও রেডিও তরঙ্গ পাবেন না। ইন্টারনেটের গতি ধীর হয়ে যাবে। বন্ধ দরজা বা দেয়াল ভেদ করে সহজে বেরিয়ে যেতে পারে না তরঙ্গ। তাই আপনি তার পূর্ণগতিও পাবেন না। তাই খোলামেলা স্থানে রাখতে হবে রাউটার, যেন তরঙ্গ বাধাহীনভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে।
ওয়াইফাই তরঙ্গ যে বস্তুতেই এসে পড়ুক না কেন তার কিছু অংশ শোষিত হয়। তাই বাধা ন্যূনতম থাকে এমন স্থানে রাখতে হবে রাউটারটাকে। এমন একটা কক্ষের বিশেষ এক স্থানে রাখতে হবে যেখান থেকে বাড়ির অন্যান্য স্থানে সহজে যাওয়া-আসা করা যায়। তাহলে বাড়ির সবখানে সহজে পৌঁছে যাবে তরঙ্গ। এতে গতি ধীর হবে না।

যদি আপনার রাউটারে দুটো অ্যান্টেনা থাকে তবে একটাকে লম্বভাবে রাখবেন। অন্যটাকে মাটি বরাবর সমান্তরাল করে রাখবেন। এতে করে তরঙ্গ দারুণভাবে ছড়িয়ে পড়বে।

আসলে এটাই স্বাভাবিক যে কম্পিউটারের পাশে রাউটার রাখা হয় যেন সিগনাল দ্রুত পায়। কিন্তু টেলিভিশন, রেডিও বা রান্নাঘরের মাইক্রোওয়েভের মতো যন্ত্র রাউটারের তরঙ্গের সঙ্গে প্রতিক্রিয়া করে। ফলে এটা দুর্বল হয়ে যায়। তাই এ ধরনের যন্ত্র থেকে রাউটার দূরে রাখুন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.