গত বিশ্বকাপে ফাইনালে হারের পর নিজেকে ধরে রাখতে পারেনি মেসি, চোখের জলে ভাসেন...
গত বিশ্বকাপে ফাইনালে হারের পর নিজেকে ধরে রাখতে পারেনি মেসি, চোখের জলে ভাসেন...

অনেক কেঁদেছি, প্রতিটি ফাইনালের হার আমাকে কাঁদিয়েছে : মেসি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

চাপ থাকবে। মেসিও জানেন। এরপরও তিনি বিশ্বাস করেন আর্জেন্টিনার বর্তমান জেনারেশনের ফুটবলারদের সামনে সময় চ্যাম্পিয়ন হিসেবে দৃশ্যপট দখলে নেয়ার। আসন্ন রাশিয়া বিশ্বকাপ তাদের জন্য শেষ সুযোগ বলেও অভিহত করেন লিটল আর্জেন্টাইন।

ক্লাব ক্যারিয়ারের স্পেনের জায়ান্ট বার্সেলোনার জার্সি সম্ভাব্য সব কিছু জিতলেও আন্তর্জাতিক ফুটবলের সিনিয়রপর্যায়ে শিরোপা খরা অব্যাহতই থেকে গেছে লিওনেল মেসির। খুব কাছে গিয়েও হতাশ হওয়ার অভিজ্ঞতাও অর্জন করেছেন বার্সেলোনা সুপারস্টার। সাম্প্রতিক সময়ে টানা তিন ফাইনালে পরাজয়ের দুঃসহ যন্ত্রণা যোগ হয়েছে তার ক্যারিয়ারে। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে হারের যন্ত্রণা শেষ না হতেই টানা দুই কোপা আমেরিকার ফাইনালেও হেরেছে মেসির আর্জেন্টিনা।

সম্প্রতি আমেরিকান টিভির লা করনিসা প্রোগ্রামে অংশ নিয়ে মেসি বলেন, ‘আমি অনেক কেঁদেছি। প্রতিটি ফাইনালের হার আমাকে কাঁদিয়েছে। কারণ আমি ব্যর্থ হয়েছি দেশের জার্সিতে স্বপ্ন পূরণ করতে। তিনটি ফাইনালই ছিল অত্যন্ত বিপর্যয়কর। আমরা তীরে গিয়ে তরী ডুবিয়ে দিয়েছে।’

আসছে জুনে ৩১ এ পা পড়বে মেসির। আর্জেন্টাইন দলে তার সতীর্থদের বেশির ভাগের (অ্যাগুয়োরো, ডি মারিয়া, ওটামেন্ডি ও হিগুয়েন) বয়সও অতিক্রম করবে ত্রিশের কোটা। মেসি বলেন, ‘আমরা ফলাফলে বিশ্বাসী। সবাই অবগত আমরা না জিতলে ভবিষ্যতে সুযোগও আর নেই।’

রাশিয়া বিশ্বকাপ জেতার স্বপ্নের কথা স্বীকার করেছেন মেসি। তিনি বলেন, ‘কল্পনায় ফাইনালে উপস্থিতি এবং জয়ের পর কাপ উঁচিয়ে ধরার দৃশ্য শিহরণ তুলে দেয় আমার শরীরে। আমার একমাত্র স্বপ্ন দেশের হয়ে বিশ্বকাপ জয়। দেশের জনগণের উদ্দেশে বলতে চাই আশা করছি রাশিয়া ভালো সময় কাটবে। গতবার আমরা পারেনি। কিন্তু সবার উদ্দেশ্য এক ও অভিন্ন। সবাই মুখিয়ে বিশ্বকাপ জিততে।’

আসছে জুনে শুরু হচ্ছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। গ্রুপপর্বেই কঠিন পরীক্ষা হবে আর্জেন্টিনার। খেলতে হবে ক্রোয়েশিয়া, আইসল্যান্ড ও নাইজেরিয়ার বিপক্ষে।

 

'আমি দলের জন্য খেলি'

একের পর এক গোল করতে অভ্যস্ত লিওনেল মেসিকেই পছন্দ ভক্তদের। তবে নিজেকে এখন প্লে-মেকার হিসেবেই দেখেন আর্জেন্টাইন সেনসেশন। গোল করার ক্ষেত্রে যুবক বয়সের তুলনায় আত্মকেন্দ্রিকতা লোপ পেয়েছে বলে দাবি করেছেন বার্সেলোনা সুপারস্টার। নিজেকে কম সেলফিশ ফুটবলার বলেও উল্লেখ করেছেন লায়নেল মেসি। সম্প্রতি আমেরিকা টিভির লা করনিসা প্রোগ্রামে অংশ নিয়ে দেয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন আর্জেন্টাইন লিটল জিনিয়াস।

মেসি বলেন, ‘অতীতে বল পায়ে ড্রিবলিং নিজের উদ্দেশ্যসাধনে এগিয়ে গেছি। এখন আমি দলের জন্য খেলি। অনেক বেশি পাস দিই। কখনো আত্মকেন্দ্রিক হই না। নতুন দর্শনে দলকে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করি। আগের মতোই পরিশ্রম করি। কিন্তু ধরনটা পাল্টে ফেলেছি।’

খেলার স্টাইলে পরিবর্তন আনলেও গোল করার ক্ষেত্রে আগের মতোই চলছে মেসির ক্যারিয়ারে। চলতি মওসুমের বার্সেলোনার জার্সিতে ইতোমধ্যে তার গোলসংখ্যা পৌঁছে গেছে ৩৪-এ। সর্বশেষ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয় চেলসির বিপক্ষে বার্সেলোনার দুই লেগের ৪ গোলের এক্স ফ্যাক্টর ভূমিকায় আর্জেন্টাইন সেনসেশন। নিজেই করেন ৩ গোল। হোম ভেনুর দ্বিতীয় লেগে বার্সেলোনার ৩-০ গোলের জয়ের দিনে ডাবল আদায় করেন মেসি। ম্যাচের অন্য গোলটিও তার বাড়ানো বলে জালে প্রবেশ করান বার্সার ফরাসি স্ট্রাইকার ওসমানে দেম্বেলে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.