ম্যাসেঞ্জারে গাজী রাকায়েতের অশ্লীল প্রস্তাব ফাঁস, সামাজিক মাধ্যমে তোলপাড়
ম্যাসেঞ্জারে গাজী রাকায়েতের অশ্লীল প্রস্তাব ফাঁস, সামাজিক মাধ্যমে তোলপাড়

ম্যাসেঞ্জারে গাজী রাকায়েতের অশ্লীল প্রস্তাব ফাঁস, সামাজিক মাধ্যমে তোলপাড়

বিবিসি

বাংলাদেশের একজন অভিনেতা ও পরিচালকদের সংগঠনের নেতা গাজী রাকায়েতের বিরুদ্ধে ম্যাসেঞ্জারে আপত্তিকর ও অশ্লীল প্রস্তাব দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন একজন নারী (এখানে তার নামটি প্রকাশ করা হচ্ছে না)। ওই নারী গাজী রাকায়েতের সাথে ম্যাসেঞ্জারের কথোপকথনের স্ক্রিনশটও একটি ক্লোজ গ্রুপে প্রকাশ করে দিয়েছেন।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে বেশ কদিন ধরে আলোচনা সমালোচনার প্রেক্ষাপটে ডিরেক্টরস গিল্ড, অভিনয় শিল্পী সংঘ এবং টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসার্স অ্যাসোসিয়েশন - বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব নেয়।

পুলিশও বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। পুলিশের 'সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম ডিভিশন'-এর মোঃ আলিমুজ্জামান বিবিসিকে বলেন, একজন নারী অভিযোগ করেছেন গাজী রাকায়েত ম্যাসেঞ্জারে তাকে অশ্লীল প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এখন পুলিশ বিশেষজ্ঞদের দিয়ে যে ফেসবুক আইডি থেকে মেসেজ পাঠানো হয় সেটি মিলিয়ে দেখছে। এদিকে ওই নারী শ্যামপুর থানায় একটি জিডিও করেছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।।

এ বিষয়ে কথা বলতে গাজী রাকায়েতের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোনে পাওয়া যায়নি।

তবে মার্চের ৬ তারিখে তার ফেসবুক পাতায় একটি পোস্ট দেয়া হয় যেখানে বলা হয়, "আমার দুটো অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে....আমার Id ব্যবহার করে messenger অনেকদিন Misuse (অপব্যবহার) হচ্ছিল....শেষ পর্যন্ত id বন্ধ করা হয়েছে....প্রচার প্রসার বাড়াতে গিয়ে একি বিপদ!!!!.facebook বন্ধ করে দেব কিনা ভাবচ্ছি!!!!!"

গাজী রাকায়েত পরিচালকদের যে সংগঠনের সভাপতি সেই ডিরেক্টরস গিল্ড-এর সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলীক।

তিনি এ বিষয়ে বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, "ব্যাপারটি যখন অভিযোগ আসে আমরা গুরুত্বের সাথে দেখি।স্ক্রিনশটটি যখন ভাইরাল করা হয় আমাদেরও নজরে আসে। তখন আমরা বোঝার চেষ্টা করি যে এটা আসলেই তার নিজের পাঠানো নাকি অন্য কারো করা? যে মেয়েটির সাথে ঘটনাটি ঘটেছে তার জন্য এটি অবশ্যই দু:খজনক। এ ধরনের কাজ যে-ই করুক না কেন সেটি শোভন নয়। কে আসলে ম্যাসেঞ্জারে সেগুলো লিখেছে বা কোনো নারীকে লিখেছে সেটি আমরা জানি না তখনো। যে মেয়েটি এ বিষয়ে ফেসবুকে স্টেটাস দিয়েছিল তাকে আমরা ডাকি এবং কথা বলি। তিনি জানান তার বান্ধবীর সাথে এটি ঘটেছে। কিন্তু যার সাথে এটি ঘটেছে তার সাথে কিন্তু যোগাযোগ করিয়ে দিতে অনুরোধ করলে তিনি তাতে রাজি হননি। "

এস এ হক অলীক আরও জানালেন, রাকায়েতের আইডটি হ্যাকড হয়েছিল। এরপর তারা তথ্য প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করেন এমন একজন ব্যক্তির সহায়তা নেন। "আমরা তানভীর জোহার সহায়তা চায় চাই এবং তিনি জানান গাজী রাকায়েতের ফেসবুক আইডি হ্যাক করা হয়েছিল। এরপর আমরা ফেসবুক লাইভে গিয়ে বিষয়টি জানিয়ে দিই।"

ম্যাসেঞ্জারে ব্যক্তিগত গোপন আলাপ স্ক্রিনশট হিসেবে ফাঁস হওয়ার পর এ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে এ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন রাকায়েত। বিষয়টি তাকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলে বলে জানান তার সহকর্মী এস এ হক অলীক।

অলীক জানান, গাজী রাকায়েত এ বিষয়ে থানায় জিডি করেছেন এবং অভিযোগে নিজের আইডি হ্যাক হওয়ার বিষয়টি এবং সামাজিকভাবে হেয়-প্রতিপন্ন হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরেছেন।

এদিকে সামাজিক মাধ্যম এবং কিছু অনলাইনের খবরে বলা হয়, বছর-খানেক আগে রাকায়েতের সাথে ওই নারীর ফেসবুকে বন্ধুত্ব হয়।

তবে স্ক্রিনশট ফাঁস করে গাজী রাকায়েতের বিরুদ্ধেই যে শুধু এ ধরনের অভিযোগ উঠলো তেমনটি নয়। এর আগে স্ক্রিনশটের মাধ্যমে একজন লেখক ও চিত্রগাহকের বিরুদ্ধে অশ্লীল কথোপকথনের ঘটনা প্রকাশ্যে চলে আসে। এরপর একজন আলোচিত তরুণ ইউ-টিউবারের সাথে মে ব্যক্তিগত কথোপকথন ফাঁস করেন তারই একজন বান্ধবী।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.