খাগড়াছড়িতে বজ্রপাতে নিহত ২

আব্দুল্লাহ আল-মামুন, খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মাটিরাঙ্গায় উপজেলায় বজ্রপাতে দুইজনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া মহালছড়িতে এক গৃহবধু আহত হয়েছেন।
শনিবার বিকেলের দিকে মাটিরাঙ্গায় সদর ইউনিয়ন পরিষদে ৭নং ওয়ার্ডএর ওয়াঁচু মুন্সি পাড়া এলাকা ও গুইমারা উপজেলার ১নং ইউনিয়নের মাটিরাঙ্গা জোনের আওতাধীন আটবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় মহালছড়ির করল্যাছড়িতে অমলেন্দু চাকমার স্ত্রী শেফালিকা চাকমা(২৫) নামে একজন বজ্রপাতে আহত হয়।
নিহতরা হলেন ওয়াঁচু মুন্সি পাড়া এলাকা আমিল কুমার ত্রিপুরার ছেলে সাধন ত্রিপুরা (১৫),ও আটবাড়ি পাড়া এলাকার জ্যোতি কুমার ত্রিপুরার মেয়ে মিকিতা ত্রিপুরা (১৩)।
মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরণজয় ত্রিপুরা বলেন, সাধন ত্রিপুরা আজ ১৭ মার্চ‘র র‌্যালী শেষ করে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে তার বাড়ির কাছাকাছি গেলে প্রচন্ড বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হয় তখন সে গ্রামে একটি মাটির গুদামের ডেলাতে আশ্রয় নেয়। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাত হলে বজ্রপাতের আঘাতে আশ্রয় নেয়া মাটির গুদামের ডেলা থেকে সাধন ত্রিপুরা পড়ে গিয়ে ঘটনা স্থলেই মারা যায়। এদিকে একই সময় মাটিরাঙ্গা জোন হতে ৪ কি:মি: র্পূব দক্ষিণ দিকে আটবাড়ি পাড়া এলাকায় নিজ বাড়িতে বজ্রপাতে লিপি ত্রিপুরা মারা যায়।
জানা যায়, সাধন কুমার ত্রিপুরা মাটিরাঙ্গা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র ও মিকিতা ত্রিপুরা শ্বশান টিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী। এ ঘটনায় দুই এলাকার মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
বজ্রপাতের নিহতের বিষয়ে জানতে চাইলে মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ জাকির হোসেন ও গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহাদাৎ হোসেন টিটো ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তারা বলেন, প্রচন্ড বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হলে বজ্রপাতে একেই সময় দুই জায়গায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.