ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

পাঠক গ্যালারি

টান টান উত্তেজনা আর ঘটনাবহুল এক ম্যাচ

মাহবুব উজ্জল

১৭ মার্চ ২০১৮,শনিবার, ২৩:৩১


প্রিন্ট
টান টান উত্তেজনা আর ঘটনাবহুল এক ম্যাচ

টান টান উত্তেজনা আর ঘটনাবহুল এক ম্যাচ

টাইগারদের নতুন স্টাইল নাগিন ড্যান্স। শুক্রবার এই নাগিন ড্যান্সের পাল্টা জবাব আসে লঙ্কানদের কাছ থেকে। আগের ম্যাচের জয়ের নায়ক মুশফিকের ক্যাচ লুফে নিয়ে সাপের বীণ বাজানোর ভঙ্গি করে লঙ্কান ফিল্ডাররা, যেন সাপ বশ করার মন্ত্র তারা শিখে ফেলেছে। যখন স্টেডিয়ামে ভরপুর লঙ্কান দর্শক টাইগারদের বীণে বশ করার আনন্দে ভাসছে। তখনই অগোচরের নায়ক মাহমুদুল্লাহ’র ব্যাটিং তাণ্ডবে সেই বীণ স্টাইল খাঁচায় ঢুকে পরে। লংকানদের ঘরের মাঠে জয়ের উচ্ছ্বাসে নাগিন ড্যান্স দিতে দিতেই মাঠ ছাড়ে টিম টাইগার্স।

ডু-অর-ডাই ম্যাচে ২ উইকেটের জয় নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে গেল বাংলাদেশ। শেষ ওভারে জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ১২ রান। ম্যাচের ১ বল হাতে রেখেই ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন দলের তারকা ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এ জয়ের ফলে ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে খেলবে টাইগাররা।

শনিবার ম্যাচের পরতে পরতে রং বদলায়। শ্রীলংকার ব্যাটসম্যানদের প্রথম দিকে চাপে ফেললেও শেষ দিকে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ১৫৯ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে স্বাগতিকরা। ১৬০ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ৩৩ রানেই দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যাওয়া বাংলাদেশ দলকে খেলায় ফেরান তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহীম। তৃতীয় উইকেট জুটিতে তারা ৬৪ রানের জুটি গড়ে বাংলাদেশকে সহজ জয়ের স্বপ্ন দেখান।

কিন্তু এরপর ১২ রানের ব্যবধানে সেট ব্যাটসম্যান মুশফিক, তামিম এবং সৌম্য সরকার আউট হলে বিপদে পড়ে যায় বাংলাদেশ। শেষ ওভারে জয়ের জন্য দরকার ছিল ১২ রান। প্রথম দুটি বলই বাউন্সার দেন ইসুরু উদানা; কিন্তু ফিল্ড আম্পায়ার নো বলের কল করেননি। যে কারণে প্রতিবাদ করেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। আম্পায়ারকে বিষয়টি বলা হলেও তাতে কান দেননি।

আম্পায়ারদের এমন সিদ্ধান্তে একটা সময়ে মাঠের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা সাকিব আল হাসান, ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং রুবেল হোসেনকে খেলা ছেড়ে চলে আসতে বলেন; কিন্তু রিয়াদ নিজের ওপর আস্থা রেখে ম্যাচ শেষ করতে ফের ব্যাটিং করেন। এর মধ্যে আবার নুরুল হাসান সোহানও বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন লঙ্কান ক্রিকেটারদের সাথে।

ওভারের প্রথম দুই বলে কোনো রান হয়নি, উল্টো উইকেট গেছে একটি। জয়ের জন্য শেষ ৪ বলে দরকার ছিলো ১২ রান। ওভারের তৃতীয় বলে চার মেরে জয়ের পথ সহজ করেন রিয়াদ। পরের বলে রুবেলকে সঙ্গে নিয়ে ডাবল নেন। পঞ্চম বলে স্কয়ার লেগের উপর দিয়ে ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন তিনি। তার ছক্কায় জিতে যায় দেশ। বাংলাদেশ চলে যায় ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫