শরণখোলায় নির্মীয়মান ওয়াপদা বেড়িবাঁধে আকষ্মিক ভাঙ্গন

শরণখোলা (বাগেরহাট) সংবাদদাতা

বাগেরহাটের শরণখোলার সাউথখালী ইউনিয়নের বগী এলাকায় বিশ্বব্যংকের অর্থায়নে নির্মীয়মান ওয়াপদা বেড়িবাঁধে আকষ্মিক ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। শনিবার ভোর রাত থেকে শুরু হওয়া ভাঙ্গনের ফলে এ পর্যন্ত সহস্ত্রাধিক ফুট বলেশ্বর নদীতে বিলীন হয়েছে। বাঁধের আরো অনেক জায়গা ভাঙ্গনের মুখে । এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে শনিবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীদের কাছ থেকে জানা যায়,বলেশ্বর নদীর তীরবর্তী বগী গ্রামের পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৩৫/১ পোল্ডারের বেরীবাধে শনিবার ভোর রাতে হঠাৎ করে ভাঙ্গন শুরু হয়। ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে বিকেল পর্যন্ত সহস্ত্রাধিক ফুট এলাকাজুড়ে বাঁধ নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙ্গন অব্যাহত থাকলে রাতে লোকালয়ে নদীর জোয়ারের পানি প্রবেশ করে ব্যাপক এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভাঙ্গনের তীব্রতায় গ্রামবাসীর মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বগী গ্রামের রতন হাওলাদার, এমদাদ মুন্সি, ছলেমান হাং জানান, চোখের পলকে বাঁধ ও ফসলের জমি নদীতে চলে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে তাদের এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়া ছাড়া কোন পথ থাকবেনা। এ ছাড়াও সাউ বর্তমানে শরণখোলায় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৩৫/১ পোল্ডারে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে প্রায় ৪ শ' কোটি টাকা ব্যয়ে ওয়াপদা বেরীবাধ নির্মাণ কাজ চলছে কিন্তু নদী শাসনের ব্যবস্থা না থাকায় বাঁধের স্থায়িত্ব নিয়ে মানুষের মাঝে প্রশ্ন ও শংকা রয়েছে।
সাউথখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন, ভেড়িবাধ ভাঙ্গার খবর উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে জানিয়ে বলেন, নদীশাসন ছাড়া নির্মীয়মান বাঁধ কোনো মতেই টিকবে না।
ওয়াপদা বেরীবাধ নির্মাণের তদারকি প্রকৌশলী শ্যামল দত্ত বলেন,ভাঙ্গন কবলিত স্থানে অচিরে রিংবাধ নির্মান করা হবে এবং রবিবার নির্বাহী প্রকৌশলী খুলনা মোঃ হান্নান ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন এবং জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করবেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.