নারীরা দৈনন্দিন জীবনে বৈষম্যের শিকার : তথ্যমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা
ধর্মান্ধ, জঙ্গি, যুদ্ধাপরাধী ও কুসংস্কারের কথা উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, এ চারচক্র আপনাদের পদে পদে বাধা দেবে এবং সুযোগ পেলেই নির্যাতন করবে। সুতরাং এদের বর্জন করা আপনাদের কর্তব্য। তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে নারীরা দৈনন্দিন জীবনে বৈষম্যের মুখোমুখি হচ্ছেন। লিঙ্গ বৈষম্য দূর করতে হবে অন্যথায় আপনাদের সমাজের অগ্রগতি সাধনে রাজাকার, যুদ্ধাপরাধী, সাম্প্রদায়িক শক্তি ও জঙ্গিচক্রের বাধার সম্মুখীন হতে হবে। তথ্যমন্ত্রী নারী সাংবাদিকদের পেশাগত দতা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছেন। 
গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস কাবে নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের ষোড়শ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান। নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুন আরা হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জাতীয় প্রেস কাবের সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সহসভাপতি দিল মনোয়ারা মনু, সাধারণ সম্পাদক পারভীন সুলতানা ঝুমা ও কোষাধ্য আখতার জাহান মালিক বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সদস্যরা ছাড়াও বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 
গণমাধ্যম কর্মীরা সরাসরি পরামর্শ দিতে পারবেন তথ্য অধিদফতরে
বাসস জানায়, গণমাধ্যম কর্মীদের মতামত ও পরামর্শ গ্রহণ করতে তথ্য অধিদফতরে একটি মতামত বাক্স স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। 
ঢাকায় সচিবালয়ে গতকাল তথ্য মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়কালে কাউন্সিলের অনুরোধে সভায় উপস্থিত প্রধান তথ্য অফিসার কামরুন নাহারকে এ নির্দেশ দেন তথ্যমন্ত্রী। কাউন্সিলের সভাপতি কে এম শহীদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক সাহাদাৎ রানাসহ কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্যরা সভায় অংশ নেন।
কাউন্সিলের পক্ষ থেকে তাদের ‘সহসম্পাদক’ পদবীটি সাংবাদিক সংজ্ঞার আওতাভুক্ত থাকা নিশ্চিত করা, রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান ও বিদেশ সফরে তাদের অন্তর্ভুক্তি এবং তাদেরসহ সব গণমাধ্যম কর্মীর অভাব-অভিযোগ রাষ্ট্রের কাছে সরাসরি পৌঁছার দাবিগুলো যথাযথ বিবেচনার আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.