ঢাকা, সোমবার,২৫ মার্চ ২০১৯

আরো খবর

পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জন্য চট্টগ্রামে ফ্যাট হচ্ছে

হামিদ সরকার

১৪ মার্চ ২০১৮,বুধবার, ০০:০০


প্রিন্ট
পরিচ্ছন্নতা কর্মী হওয়ার কারণে সামাজিক প্রতিবন্ধকতার কারণে তারা সন্তানদের স্কুলে পাঠাতে পারেন না। অতি দরিদ্র এসব মানুষ নিয়মিত ড্রেন ও রাস্তা পরিষ্কার করেন। এরা হলেন নি¤œবর্ণের হিন্দু ধর্মাবলম্বী। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের পরিবেশসম্মত বাসস্থানের জন্য এক হাজার ৩০৯টি ফ্যাট করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। চলতি বছর প্রকল্পটি অনুমোদন পেলে ২০২০ সালের জুনে সমাপ্ত হবে বলে প্রকল্প প্রস্তাবনায় উল্লেখ করা হয়েছে। 
সম্প্রতি অনুষ্ঠিত মূল্যায়ন কমিটির সভায় জানানো হয়, চট্টগ্রাম মহানগরীতে পরিচ্ছন্নতাকাজে নিয়োজিত সেবকেরা সিটি করপোরেশনের নিজস্ব ভূমির আটটি স্থানে বাস করছেন। সেখানে বর্তমানে দুই হাজার ৪৬১টি পরিবার বাস করে। তাদের সদস্য সংখ্যা তিন হাজার ৪৬৩। এদের মধ্যে এক হাজার ৩০৯ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকাজে নিয়োজিত। আর কিছু সেবক নগরীর অন্যান্য অফিস, আদালত ও ব্যক্তিগত ভবনে পরিচ্ছন্নতার কাজে নিয়োজিত। অন্যের বাসস্থানের পরিচ্ছন্নতার কাজ করছেন নিজেরা কিন্তু তাদের পরিবেশসম্মত আবাসন নেই। শিক্ষা, সুপেয় পানি ও মানসম্মত বাসস্থান থেকে তারা বঞ্চিত। তাই এক হাজার ৩০৯ জনের জন্য এক হাজার ৩০৯টি ফ্যাট নির্মাণের জন্য প্রকল্প হাতে নিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। 
প্রকল্পের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ২৩৩ কোটি ৬২ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। প্রতিটি ফ্যাটের আয়তন হবে ৬০২ বর্গফুট। প্রতিটি ফ্যাটে একটি বেডরুম, একটি কমনরুম, একটি কিচেন, একটি টয়লেট ও একটি করে বারান্দা থাকবে। ভবনগুলোর নিচতলা উন্মুক্ত থাকবে। 
পরিকল্পনা কমিশন বলছে, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের সন্তানদের পড়াশুনার জন্য প্রতিটি ভবনের নিচে স্কুল ও সাংস্কৃতিককাজে ব্যবহারের সংস্থান রাখতে হবে। ৫০ কোটি টাকার বেশি ব্যয়ের প্রকল্প হওয়ায় এটার জন্য একজন স্থায়ী পরিচালক নিয়োগের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫