এমপি হাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে মানববন্ধন

নড়াইল সংবাদদাতা

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ হাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে মানববন্ধন করেছেন ভুক্তভোগীরা। গতকাল দুপুরে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন লোহাগড়ার কচুবাড়িয়া এলাকার ভুক্তভোগী মোস্তফা কামালসহ অন্যরা।
মোস্তফা কামাল জানান, শেখ হাফিজুর রহমান ২০১৫ সালের ২৬ মে কচুবাড়িয়া এলাকায় ৭০ শতক জমি এবং পাশের ২০ শতক জমির পাট নষ্ট করে গরুর খামার করেন। তার ভাই গোলাম হায়দারকে ভয়ভীতি দেখিয়ে অর্ধেক মূল্যে ২০ শতক জমি দলিল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ ছাড়া ৭০ শতক জমির ভাগিদারদের একসাথে করতে না পারায় ওই জমি দলিল করে নেয়া সম্ভব হয়নি। প্রায় এক কোটি টাকার জমি জবরদখল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তারা।
ভুক্তভোগী মোস্তফা কামাল বলেন, এমপি শেখ হাফিজুর রহমানের গরুর খামারের পাশে আমার প্রায় দেড় একর জমিতে খামারের মলমূত্র ফেলে জমি নষ্ট করা হচ্ছে। খামারের মলমূত্র বের করার জন্য গত ৬ মার্চ আমার জমিতে ইট দিয়ে নালা তৈরি করা হয়েছে। এ সময় আমি এবং আমার ভাই গোলাম হায়দার বাধা দিতে গেলে এমপির লোকজন আমাদের দিকে তেড়ে আসেন। পরদিন আমার ছোট ভাই ফারুকের ওপর আক্রমণের চেষ্টা চালায়।
এ ব্যাপারে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শেখ হাফিজুর রহমান বলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হয়েছে তা ঠিক নয়। মোস্তফা কামাল ও তার ভাইয়ের কোনো জমি দখল করা হয়নি। আমার গরুর খামারের পাশের জমির মালিক মোস্তফা কামাল তার জমি উচ্চমূল্যে বিক্রি করতে চেয়েছিল। সেই জমি উচ্চমূল্যে না কেনায় আমার বিরুদ্ধে অপবাদ দেয়া হয়েছে। আর মোস্তফা কামালের জমিতে কোনো নালা তৈরি করা হয়নি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.