ড্রেসিংরুমের সামনে মুশফিকুর রহীম : এএফপি
ড্রেসিংরুমের সামনে মুশফিকুর রহীম : এএফপি

মুশফিক-লিটনকে নিয়ে ভারতও ভাবছে

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশের টি-২০ ম্যাচের পরিসংখ্যানে চোখ রাখলে অতটা ভাববার বিষয়ই ছিল না। কিন্তু এক ম্যাচেই বদলে গেছে সব। যে দলটা ২১৪ চেজ করে জিততে পারে, তাদের সহজভাবে নেয়ার অবকাশ নেই। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়ের পর ম্যাচসেরা পারফরমার শার্দুল ঠাকুরও তাই মনে করেন। তিনি বলেছিলেন, আগের ম্যাচে তো তাদের আমরা ৬ উইকেটে হারিয়েছিলাম। কিন্তু এখন ততটা সহজে সব হয়ে যাবে এটা ভাবছি না। ওরা (বাংলাদেশ) অনেক ভালো ক্রিকেট খেলেছে। অবশ্যই তাদের বিপক্ষে ভালো কিছু আমাদের করতে হবে।’ শুধু বাংলাদেশ দল বলেই নয়, মুশফিকুর রহীম ও লিটন দাসকে নিয়েও প্রতিপক্ষের দুশ্চিন্তার অন্ত নেই। এত দিন তামিমকে নিয়েই যত ভাবনা ছিল ভারতের। কারণ তামিম ভারতকে পেলেই একটু অন্য রকম হয়ে যান। এবার লিটন ও মুশফিক যা করছেন তাতে টেনশন বেড়েই গেছে। শার্দুল বলে গেছেন, ‘মুশফিক ও লিটনদের জন্য প্ল্যান থাকবে।’ তবে এটা ঠিক, বাংলাদেশের পিছু টান নেই। আজো তারা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যে ম্যাচ খেলেছে সেটা করারই প্ল্যান থাকবে এটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কারণ বাংলাদেশের মূল লক্ষ্য শ্রীলঙ্কাকে টপকে ফাইনালে ওঠা।
মুশফিক ভারতের বিপক্ষে করেছিলেন ১৮ রান। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তো করেছেন ৩৫ বলে অপরাজিত ৭২। আর লিটন করেন ৪৩ রান ১৯ বলে। তার স্ট্রাইক রেট ছিল ওই ম্যাচে ২২৬.৩১। ছক্কা হাঁকান তিনি পাঁচটি। মুশফিকের ছক্কা চারটি। গত বিপিএল থেকেই মুশফিক শর্টার ভার্সনে ভালো খেলছেন। নির্ধারিত কোনো প্র্যাকটিস শিডিউল না থাকলেও মুশফিক একাই করে গেছেন ব্যাটিং প্র্যাকটিস এমন রেকর্ডও রয়েছে। কঠোর পরিশ্রম করে চলেছেন এ ব্যাটসম্যান বিশেষ করে টেস্ট দলের অধিনায়কত্ব হারানোর পর। কারণ উইকেটরক্ষকে বেশ ক’জন প্রতিদ্বন্দ্বী দাঁড়িয়ে গেছে। ফলে দলে টিকতে হলে ব্যাটিং পারফরম্যান্স দিয়েই যে টিকে থাকতে হবে সেটা তিনি জানতেন। তা ছাড়া ইদানীং কথাও উঠেছিল, টি-২০তেও মুশফিক কেন? মুশফিকের কানে এসব কথা তো অবশ্যই গেছে। ফলে সতর্ক হয়েছেন। দলে যে ভূমিকা রেখেছেন সেটা ছিল অকল্পনীয়। মুশফিকই শুধু নয়, তার ওই ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ দলও যে প্রয়োজনীয় ব্যাটিংটা করতে পারে, সেটার প্রমাণ রাখেন তিনি ওই ম্যাচে। আজো মুশফিক এমন পারফরম্যান্স করবেন এটা প্রত্যাশা। মূলত ওই ম্যাচে একটি পরিবর্তন ছিল। লিটন দাসকে দিয়ে ওপেন করানো হয়েছিল, যা ছিল যৌক্তিক। তামিম ও লিটন মিলে যে সূচনা করেন। এরপর মুশফিক ভালো মতো কাভার করেন। আজো ওই স্কোয়াডই থাকবে বলে আভাস পাওয়া গেছে। শুধু দলে আসতে পারেন আরিফুল হক। একজন পেসার কমিয়ে সেখানে আরিফকে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে। তবে এটা ঠিক, ভারত আজ অনেক হিসাব কষেই নামবে। যেহেতু তাদেরও বেশ ক’জন নিয়মিত ক্রিকেটার নেই। ফলে যারা রয়েছেন তাদের নিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো কিছু করার লক্ষ্যেই নামবে তারা খেলতে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.