পাথরঘাটায় গণধোলাইয়ে ডাকাত নিহত

পাথরঘাটা (বরগুনা) সংবাদদাতা

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় গণধোলাইয়ে মো: বেল্লাল হোসেন (৪০) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার কালমেঘা ইউনিয়নের দক্ষিণ কুপধন গ্রামে এ গণধোলাইয়ের ঘটনা ঘটে। পরে রাত ৮টার দিকে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

থানা সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সন্ধ্যার আগে উপজেলার কালমেঘা ইউনিয়নের দক্ষিণ কুপধন গ্রামে ডাকাত বেল্লালকে আটক করে রশি দিয়ে বেঁধে গণধোলাই দেয় গ্রামবাসী। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে বেল্লালকে উদ্ধার করে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসার কিছুক্ষণ পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তার মৃত্যু ঘোষণা করেন।

পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক আনোয়ার উল্লাহ বলেন, হাসপাতালে আসার ২০ মিনিটের মধ্যেই মারা যায়। বেল্লালের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর আঘাত থাকায় মৃত্যু হয়েছে।

পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা মো: খবীর আহম্মেদ বলেন, গণধোলাইয়ের খবর শুনে ঘটনাস্থল থেকে বেল্লালকে উদ্ধার করে চিকিৎসার পাথরঘাটা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। পরে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষণা করেন। লাশ সুরতহাল করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, কালমেঘায় গণডাকাতি মামলার জেল হাজতে থাকা আসামি মো: জসিম উদ্দিন ১৬৪ ধারায় নিহত বেল্লাল ডাকাতির সাথে জড়িত বলে জবানবন্দি দেয়। তার বিরুদ্ধে একাধিক ডাকাতি মামলা রয়েছে বলেও তিনি বলেন।

এর আগে চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি উপজেলার কালমেঘা ইউনিয়নে একই রাতে ৩ বাড়ির লোকজনদের হাত-পা বেঁধে গণডাকাতি করে সংগঠিত ডাকাত দল। ওই মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামি মো: জসিম বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.