ব ই আ লো চ না

ইবরাহীম খাঁর মূল্যায়ন গ্রন্থ

শিক্ষার আলো বিস্তারে আজীবন সংগ্রাম ও ত্যাগ স্বীকার করেছেন, জনদরদি মনীষী প্রিন্সিপাল ইবরাহীম খাঁ (১৮৯৪-১৯৭৯)। ব্রিটিশবিরোধী আজাদি আন্দোলনের সক্রিয় সিপাহসালার, প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ, উপমহাদেশের প্রথম মুসলিম প্রিন্সিপাল তিনি। সমাজ সংস্কারক, রাজনীতিবিদ, জ্ঞানতাপস, সার্থক অনুবাদক, মুসলিম নবজাগরণের অন্যতম পুরোধা, প্রবন্ধকার, নাট্যকার, গদ্যলেখক ইবরাহীম খাঁ ছিলেন বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। সভ্যতা ও মহত্বের সুন্দর প্রকাশ ঘটেছিল ইবরাহীম খাঁর মধ্যে। সারাজীবনই তিনি দেশের মানুষের কথা ভেবেছেন এবং মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন। গ্রামের নিরক্ষর মানুষের প্রতি ছিল তার অপরিসীম দরদ ও ভালোবাসা। তিনি ছিলেন মানুষের প্রকৃত বন্ধু। মুসলিম-অমুসলিম সবার প্রতি ছিল তার উদার ও অকৃত্রিম মহানুভবতা।
ইবরাহীম খাঁর সাহিত্যজুড়ে রয়েছে গ্রামবাংলার অবহেলিত ও বঞ্চিত সাধারণ মানুষের কথা। সমাজ দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে। এ পরিবর্তনের ধারায় ইবরাহীম খাঁর মতো মনীষীদের স্মরণ রাখা খুবই জরুরি। প্রজন্মের তরুণ, চিন্তাশীল ও উদ্যমী গবেষক ড. ইয়াহইয়া মান্নান রচনা করেনইবরাহীম খাঁর সাহিত্য সাধনা ও চিন্তাধারা শীর্ষক বইটি। এটি মূলত লেখকের পিএইচডি অভিসন্দর্ভ। লেখকের ভাষায়-‘ এই অভিসন্দর্ভটি আমার তিন বছর দুই মাস গবেষণার ফল।’ এ অভিসন্দর্ভে ইবরাহীম খাঁর সাহিত্যসাধনার প্রকৃতি ও দূরদর্শী চিন্তাচেতনার পরিচয় বিধৃত হয়েছে। ঘামঝরা পরিশ্রমের সিঁড়ি বেয়ে লেখা এ গ্রন্থে ইবরাহীম খাঁর রচনার প্রতিনিধিত্বকারী আঠারোটি বিখ্যাত গ্রন্থের পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ রয়েছে। এই গবেষণা গ্রন্থটিতে লেখক ভূমিকা, উপসংহার ও গ্রন্থপঞ্জির সাথে ছয়টি অধ্যায় সাজিয়েছেন। প্রথম অধ্যায়ে লেখকের সমকালীন সমাজ পরিপ্রেক্ষিতের আলোকে তৎকালীন মুসলিম লেখক ও বুদ্ধিজীবীদের দৃষ্টিভঙ্গি বিবৃত হয়েছে। পাশাপাশি আলোচ্য লেখকের কথাও প্রাসঙ্গিকভাবে বর্ণিত হয়েছে। দ্বিতীয় অধ্যায়ে লেখকের জীবন ও জীবনদৃষ্টি উপস্থাপিত হয়েছে। তৃতীয়, চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ অধ্যায়ে লেখক রচিত কথাসাহিত্য, নাটক, স্মৃতিকথা, ভ্রমণসাহিত্য, প্রবন্ধসাহিত্য ও পত্রসাহিত্যের পরিচয় ও তার চিন্তাচেতনার দিকটি উদ্ভাসিত হয়েছে। এক কথায় বলা যায়, ১৯ শতকের সূচনালগ্ন থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম পর্যন্ত কালসীমার পটভূমি ও তার সাহিত্যসাধনা এই গবেষণায় সুচারুভাবে প্রস্ফুটিত হয়েছে।
এই গবেষণার মাধ্যমে পাঠকদের ইবরাহীম খাঁ সম্পর্কে জানার পথ সুগম হয়েছে। বইটি নভেম্বর, ২০১৭-তে প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশ করেছে ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ, বাংলাবাজার, ঢাকা। বইটির গেট আপ, মেক আপ, বাঁধাই যেকোনো পাঠককে মুগ্ধ করবে সন্দেহ নেই। প্রচ্ছদশিল্পী সোহেল আনাম প্রচ্ছদ নির্মাণে যথেষ্ট মুন্সিয়ানার স্বাক্ষর রেখেছেন। ৫৮৪ পৃষ্ঠার তথ্যবহুল এ বইটি পাঠক হৃদয়ে স্থান করে নিতে সক্ষম হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।
Ñ মাহবুব সাকী

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.