সরকার সাংবাদিকদের কণ্ঠ রোধ করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে : বি. চৌধুরী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, দেশের মানুষের পীঠ আজ দেয়ালে ঠেকে গেছে। মানুষ মুখ খুলে কথাও বলতে পারছে না। সরকার ৫৭ ধারা আর ৩২ ধারার খেলায় সাংবাদিকদের কণ্ঠ রোধ করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। সব মিলিয়ে একদলীয় স্বৈরশাসনের জাঁতাকলে জাতি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাই জনগণকে আর ঘুমিয়ে থাকলে চলবে না। জেগে উঠতে হবে।
তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার আশুগঞ্জ রেল গেটে বিকল্পধারা আয়োজিত এক জনসভায় এসব কথা বলেন।
বিকল্পধারা আশুগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি জাকারিয়া স্বপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জেএসডির সহসভাপতি তানিয়া ফেরদৌস, বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব আবদুর রউফ মান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার ওমর ফারুক, বিকল্পধারার কেন্দ্রীয় নেতা হাফিজুর রহমান ঝান্টু, ওয়াসিমুল ইসলাম প্রমুখ।
বি. চৌধুরী বলেন, দেশে ৯ বছর ধরে প্রশ্নপত্র ফাঁস হচ্ছে, রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদের বক্তব্য সমর্থন করে যারা জড়িত তাদের ফায়ারিং স্কোয়াডে দিতে হবে। এ কথার মর্মার্থ হলো এই যে, সব মহলে স্বীকৃত সত্য হচ্ছে, প্রশ্নপত্র ফাঁস একটি বাস্তবতা। এ ব্যাপারে সরকার কেন পদক্ষেপ নিতে পারেনি। গত ৯ বছরে প্রায় দেড় কোটি পরীক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এ সরকারকেই এর মূল্য দিতে হবে।
সাবেক এই রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, দেশের দুই কোটি ৪০ লাখ নতুন ভোটার হয়েছে, যারা এর আগে ভোট দেয়নি। ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য তাদেরকেই আগামীর চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। তিনি বলেন, জনগণের ভোটের অধিকার এবং জীবনের নিরাপত্তা দিতে হবে। আমার ভোট যাকে খুশি নয়, যাকে পছন্দ করি তাকেই দেবো। তিনি আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বাইরে যুক্তফ্রন্টের পতাকাতলে সমবেত হওয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।
জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, জালিম সরকারকে উৎখাত করে জনগণের সরকার কায়েম করতে হবে। সুতরাং জনগণকে যুক্তফ্রন্টের সাথে শরিক হতে হবে।
নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, যারা আওয়ামী লীগ বা বিএনপি নয়, যারা দুর্নীতি, সন্ত্রাস করেনি এমন মানুষকে ভোট দিতে হবে। আর আওয়ামী লীগকে ওয়াকওভার করতে দেয়া হবে না। দেশ বাঁচাতে তিনি যুক্তফ্রন্টের হাতকে শত্তিশালী করার জন্য জনগণের বৃহত্তর ঐক্য কামনা করেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.