রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদকে আসামের গৌহাটি বিমানবন্দরে স্বাগত জানাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীশ মুখী :  পিআইডি
রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদকে আসামের গৌহাটি বিমানবন্দরে স্বাগত জানাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীশ মুখী : পিআইডি

রাষ্ট্রপতিকে গৌহাটিতে লালগালিচা সংবর্ধনা

বাসস

রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের রাজধানী গৌহাটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছলে তাকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়।
রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ নয়াদিল্লিতে সোলার সামিট-২০১৮ এবং আসামে ফাউন্ডিং কনফারেন্স অব দ্য ইন্টারন্যাশনাল সোলার অ্যালায়েন্সে (আইএসএ) যোগ দিতে চার দিনের সফরের অংশ হিসেবে গতকাল গৌহাটি পৌঁছান। ১১ মার্চ নয়াদিল্লিতে এ সম্মেলন শুরু হবে।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফাইট রাষ্ট্রপতি ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে স্থানীয় সময় বেলা ১টা ৪৪ মিনিটে গৌহাটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।
বিমানবন্দরে আসামের গভর্নর জগদীশ মুখ, ঢাকায় ভারতের হাইকমিশনার, নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার এবং গৌহাটিতে বাংলাদেশ হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান।
এর আগে গতকাল বেলা ১টা ৩২ মিনিটে হজরত শাহ্জালাল (রহঃ) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফাইটে সফরসঙ্গীদের নিয়ে তিনি গৌহাটির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন।
রাষ্ট্রপতি আসামের ভায়াভন্তের তাজ-এ অবস্থান করবেন। আসামের গভর্নর এবং আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোওয়াল সেখানে তার সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।
আসামের গভর্নর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদের সৌজন্যে হোটেল রেডিসনে নৈশভোজের আয়োজন করবেন।
রাষ্ট্রপতি শুক্রবার সকালে ভারতের বিমানবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে বালাতের উদ্দেশে গৌহাটি ত্যাগ করবেন। বিকেলে তিনি শিলং ও লাবনে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাসভবন পরিদর্শন করবেন।
রাষ্ট্রপতি হামিদ ভারতের মেঘালয় রাজ্যের বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করবেন, যেখানে তিনি একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় অবস্থান করেছিলেন।
বাংলাদেশের সাথে বিমান যোগাযোগে আগ্রহী আসাম
আসাম সরকার বাংলাদেশের সাথে বিশেষ করে বিমান যোগাযোগ স্থাপনে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেছে, যাতে করে বাংলাদেশ ও আসাম পরস্পরের উন্নয়ন সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পারে।
গতকাল গৌহাটিতে হোটেল ভিয়াভন্ত বাই তাজ-এ রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদের সাথে আসামের গভর্নর জগদীশ মুখ ও মুখ্য মন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল পৃথক পৃথকভাবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এলে বিমান যোগাযোগের বিষয়টি প্রাধান্য পায়।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বর্তমানে সোলার সামিটে যোগ দিতে চার দিনের ভারত সফরের অংশ হিসেবে এখন আসামে রয়েছেন।
আসামের গভর্নর ও মুখ্যমন্ত্রীর সাথে আলোচনায় রাষ্ট্রপতি প্রতিবেশীদের বৃহত্তর স্বার্থে বাংলাদেশ ও আসামের মধ্যে অধিকতর যোগাযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করার ওপর জোর দেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ ভারতের মতো পরীক্ষিত ও বন্ধু প্রতিবেশীর সাথে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে সব সময় অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে।
পরে রাষ্ট্রপতি রেডিসন ব্লু হোটেলে আসামের গভর্নরের দেয়া এক নৈশভোজে ভাষণ দেন। মুখ্যমন্ত্রী সনোয়াল বক্তৃতা করেন। রাষ্ট্রপতি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন। সে সময় এখানে তিনি সাব-সেক্টর কমান্ডার ছিলেন। এর আগে বিকেলে রাষ্ট্রপতি হামিদ কামাক্ষ্যা মন্দির পরিদর্শন করেন এবং মাচখোয়া ঘাটে নদী ভ্রমণ উপভোগ করেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.