নিবন্ধন চলবে ১৮ মার্চ পর্যন্ত

বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রী প্রাক-নিবন্ধনের সুযোগ আরো কমলো

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের জন্য কোটা কমে গেছে তিন হাজার চার শ’। এ বছর হজে গমনে ইচ্ছুক বেসরকারিভাবে প্রাক-নিবন্ধিতদের মধ্যে এক লাখ ২০ হাজার জনের যাওয়ার সুযোগ থাকলেও হজগাইড ও হজ এজেন্সির ব্যবস্থাপনা সদস্য হিসেবে ৩৪ শ’ ব্যক্তি সরাসরি নিবন্ধন করায় এ কোটা কমে যাচ্ছে। এ দিকে হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়িয়েছে সরকার। ইতঃপূর্বে ১১ মার্চ পর্যন্ত সময় নির্ধারিত থাকলেও নতুন করে আগামী ১৮ মার্চ পর্যন্ত হজযাত্রীদের নিবন্ধন কার্যক্রম চালু রাখার কথা জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। অপর দিকে নতুন করে আরো ১৪০টি বেসরকারি হজ এজেন্সিকে হজ কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দিয়েছে সরকার। এ নিয়ে অনুমোদিত হজ এজেন্সির সংখ্যা দাঁড়াল ৯১২টিতে।
ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালে প্রাক-নিবন্ধন পদ্ধতি চালু হওয়ার পর ওই বছর এক লাখ ৪০ হাজার ৯৯৫ জন প্রাক-নিবন্ধন করেন। তবে তাদের মধ্যে এক লাখ এক হাজার ৮২৯ জন হজে যেতে সক্ষম হন। বাকিদের ২০১৭ সালের হজের জন্য রাখা হয়। গত বছর বেসরকারি কোটা এক লাখ ১৭ হাজার ১৯৮ জনের বিপরীতে প্রাক-নিবন্ধন করেন এক লাখ ৫১ হাজার ৪৪ জন। এক লাখ ৪০ হাজার ৯৯৫ নম্বর থেকে শুরু হয়ে দুই লাখ ৯২ হাজার ৮৫৮ নম্বর পর্যন্ত প্রাক-নিবন্ধন করেন। ফলে গত বছরের প্রাক-নিবন্ধিতদের মধ্য থেকে প্রায় ৭৫ হাজার হজে যেতে পারেননি। তাদের ২০১৮ সালের জন্য রেখে দেয়া হয়। চলতি বছরে দুই লাখ ৪৫ হাজার ৫৩ জন প্রাক-নিবন্ধন করেছেন। ফলে বর্তমানে মোট প্রাক-নিবন্ধিত রয়েছেন পাঁচ লাখ ৩৭ হাজার ৯১১ জন। তাদের মধ্যে তিন লাখ ৫২ হাজার ২৯২ ক্রমিক পর্যন্ত ২০১৮ সালে মূল নিবন্ধন করতে পারবে বলে ধর্ম মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। এ বছর বাংলাদেশ থেকে মোট এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন ব্যক্তি হজে যেতে পারবেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় সাত হাজার ১৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার জন হজে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। তবে ধর্ম মন্ত্রণালয় এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, বেসরকারি ব্যবস্থাপনার এ নির্ধারিত কোটার মধ্যে হজগাইড ও হজ এজেন্সির ব্যবস্থাপনার সদস্য থাকবেন তিন হাজার চার শ’। যারা সরাসরি নিবন্ধন করবেন। এ কারণে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধিত হজযাত্রীদের মধ্যে থেকে এক লাখ ১৬ হাজার ছয় শ’ জন হজে যেতে পারবেন। এতে বেসরকারি নিবন্ধিতদের সুযোগ আরো কমলো।
এ দিকে হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়িয়েছে সরকার। গত ১ মার্চ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রী নিবন্ধন শুরু হয়। ১১ মার্চ পর্যন্ত নিবন্ধন চলবে বলে সে সময় জানানো হয়। তবে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রী নিবন্ধন শুরু হয় ৬ মার্চ থেকে। এ কারণে আগামী ১৮ মার্চ পর্যন্ত হজযাত্রীদের নিবন্ধনের সময় বাড়িয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় তিন হাজার ২০০ এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় মাত্র ১২০ জন নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন।
নতুন করে আরো ১৪০টি বেসরকারি হজ এজেন্সিকে হজ কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দিয়েছে সরকার। এ নিয়ে অনুমোদিত হজ এজেন্সির সংখ্যা দাঁড়াল ৯১২টিতে। প্রাথমিকভাবে ৭৭২টি এজেন্সিকে সৌদি আরবে হজযাত্রী পাঠাতে অনুমতি দেয় ধর্ম মন্ত্রণালয়। পরে গত ৭ মার্চ আরো ১৪০টি এজেন্সিকে অনুমোদন দেয়া হয়। এসব এজেন্সি ন্যূনতম ১৫০ থেকে ৩০০ জন হজযাত্রী পাঠাতে পারবে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.