ডিএসইর প্রস্তাব পর্যালোচনা কমিটির সময় বৃদ্ধি

ডিএসইতে ১ বছর ৮ মাসের সর্বনিম্ন লেনদেন

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক

নেতিবাচক আচরণ অব্যাহত রয়েছে পুঁজিবাজারে। গতকাল সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসের বেশির ভাগ সময় দরপতনের শিকারে ছিল দেশের দুই পুঁজিবাজার। লেনদেনের শেষ এক ঘণ্টা বাজার পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও দিনশেষে দিনের শুরুতে তৈরি হওয়া নেতিবাচক প্রবণতার বড় রকম প্রভাব পড়ে পুঁজিবাজারের লেনদেনে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন নেমে আসে ২৭৩ কোটি টাকায়, যা বাজারটির বিগত এক বছর আট মাসের সর্বনিম্ন লেনদেন। ২০১৬ সালের ১১ জুলাইয়ের পর আর এ পর্যায়ে নামেনি ডিএসইর লেনদেন।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স গতকাল ৫ দশমিক ৮১ পয়েন্ট বৃদ্ধি পায়। ৫ হাজার ৮২২ দশমিক ১৭ পয়েন্ট থেকে দিন শুরু করা সূচকটি বৃহস্পতিবার দিনশেষে পৌঁছে যায় ৫ হাজর ৮২৭ দশমিক ৯৮ পয়েন্টে। একই সময় ডিএসই-৩০ সূচকটি দশমিক ১৯ পয়েন্ট উন্নতি ধরে রাখলেও দশমিক ২৬ পয়েন্ট অবনতি হয় ডিএসই শরিয়াহ সূচকের।
দেশের দ্বিতীয় পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক ও সিএসসিএক্স সূচকের উন্নতি হয় যথাক্রমে ৭ দশমিক ৭৪ ও ৪ দশমিক ৫৮ পয়েন্ট। এখানে সিএসই-৫০ সূচকটি ১ দশমিক ৮৬ পয়েন্ট বাড়লেও ১ দশমিক ৫২ পয়েন্ট হারায় সিএসই শরিয়াহ সূচক।
গতকাল দিনের শুরু থেকে সৃষ্টি হওয়া নেতিবাচক প্রবণতা পুঁজিবাজারগুলোর লেনদেনে বড় ধরনের প্রভাব ফেলে। এ জন্য বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ ব্যাপকভাবে হ্রাস পায়। টানা দুই দিনের নেতিবাচক প্রবণতা নতুন করে হতাশায় ফেলে বিনিয়োগকারীদের। ডিএসইর বিভিন্ন ব্র্রোকার হাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংকের ট্রেডিং ফোরগুলোতে বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতি স্বাভাবিক থাকলেও বাজার আচরণ দেখে তাদের বেশির ভাগই নিষ্ক্রিয় ভূমিকা পালন করে। ঢাকা শেয়ারবাজার গতকাল ২৭৩ কোটি টাকার লেনদেন নিষ্পত্তি করে, যা আগের দিন অপেক্ষা ১৩২ কোটি টাকা কম। বুধবার ডিএসইর লেনদেন ছিল ৪০৫ কোটি টাকা। চট্টগ্রামে ৩৩ কোটি থেকে ২৭ কোটি টাকায় নেমে আসে লেনদেন।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কৌশলগত বিনিয়োগকারীর প্রস্তাব পর্যালোচনার জন্য বিএসইসির গঠন করা কমিটির সময় বাড়ানো হয়েছে। আগামী ১৫ মার্চের মধ্যে কমিটিকে তাদের মতামত জানাতে হবে। আগের এ সময় ছিল ১০ মার্চ।
বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানতে চাইলে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো: সাইফুর রহমান বলেন, কৌশলগত বিনিয়োগকারী সংক্রান্ত ইস্যুতে গঠিত কমিটির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। কমিটির আবেদনের প্রেেিত এ সময় বাড়ানো হয়েছে। এর আগে কৌশলগত বিনিয়োগকারী ইস্যুতে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের নেয়া সিদ্ধান্তের প্রস্তাব গত ২২ ফেব্রুয়ারি বিএসইসিতে জমা দেয়া হয়। ওই দিন বিএসইসি এ প্রস্তাব যাচাই-বাছাই করার জন্য চার সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ দেয় কমিশন।
গঠিত কমিটি কিছু বিষয়ে পরিষ্কার হওয়ার জন্য গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বুধবার ডিএসইর দেয়া প্রস্তাবের ওপর বেশ কিছু বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি ইস্যু করেছিল পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি। এ চিঠির ব্যাখ্যা দেয়ার জন্য পর্ষদ সভা ডাকে ডিএসই। পরে ৪ মার্চ রোববার বিএসইসিকে জবাব পাঠায় ডিএসই কর্তৃপ।
লিখিত ব্যাখ্যা দেয়ার পাশাপাশি ৫ মার্চ ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল পর্যালোচনা কমিটির সাথে দেখা করে। এ সময় উভয়পক্ষের বৈঠকে চীনভিত্তিক কনসোর্টিয়াম সাংহাই-সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জের দেয়া প্রস্তাবের উল্লেখযোগ্য কিছু কিছু শর্তের ক্ষেত্রে নমনীয় মনোভাবের কথাও তুলে ধরেন ডিএসই প্রতিনিধি।
ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মতো প্রধান খাতগুলো গতকাল আগের হারানো দর কিছুটা ফিরে পেলেও বাকি খাতগুলোতে দর হারায় বেশির ভাগ কোম্পানি। এ ছাড়া দিনের শেষ দিকে প্রধান তিনটি খাতের মূল্যবৃদ্ধিই দুই বাজার সূচকের পতন ঠেকায়। ঢাকা শেয়ারবাজারে গতকাল লেনদেন হওয়া ৩৩৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ১২০টির মূল্যবৃদ্ধির বিপরীতে দর হারায় ১৬২টি। অপরিবর্তিত ছিল ৫২টির দর। অন্য দিকে চট্টগ্রাম শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া ২১৫টি সিকিউরিটিজের মধ্যে ৭৯টির দাম বাড়ে, ১০০টির কমে ও ৩৮টির দাম অপরিবর্তিত থাকে।
ঢাকা শেয়ারবাজারে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক। ১২ কোটি ৪৫ লাখ টাকায় কোম্পানিটির ৫০ লাখ ১০ হাজার শেয়ার হাতবদল হয় গতকাল। ১০ কোটি ১৭ লাখ টাকায় ৬ লাখ ৭৬ হাজার শেয়ার বেচাকেনা করে মুন্নু সিরামিকস ছিল দ্বিতীয় স্থানে। ডিএসইর লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির অন্যগুলো ছিল যথাক্রমে স্কয়ার ফার্মা, এসিআই লিমিটেড, গ্রামীণফোন, ইফাদ অটোস, নাহি অ্যালুমিনিয়াম, বিডি থাই অ্যালুমিনিয়াম, এপেক্স ফুড ও মার্কেন্টাইল ব্যাংক।
জাহিন স্পিনিংয়ের রাইট শেয়ার অনুমোদন
জাহিন স্পিনিং লিমিটেডের রাইট শেয়ার অনুমোদন দিয়েছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জের তথ্যানুযায়ী, কোম্পানিটি একটি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে একটি রাইট শেয়ার অর্থাৎ ১:১ অনুপাতে ইস্যু করতে পারবে। ৯ কোটি ৮৫ লাখ ৫২ হাজার ৭০০টি সাধারণ শেয়ার ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে বাজারে ছাড়ার অনুমোদন পেয়েছে। বুধবার কমিশন সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
রাইট শেয়ার ইস্যু করে কোম্পানিটি ৯৮ কোটি ৫৫ লাখ ২৭ হাজার টাকা বাজার থেকে উত্তোলন করে ব্যবসা সম্প্রসারণ, চলতি মূলধন ও আংশিক ঋণ পরিশোধ করবে।
প্রসঙ্গত, ওই রাইটস শেয়ারের ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে জিএসপি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড ও এমটিবি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.