সেনবাগে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ
সেনবাগে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ

সেনবাগে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ

সেনবাগ (নোয়াখালী) সংবাদদাতা

নোয়াখালী জেলার সেনবাগে তৃতীয় শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে (৯) ধর্ষণ করেছে স্থানীয় এ অটোচালক। বুধবার দুপুরে স্কুলে যাওয়ার পথে উপজেলার ২নং কেশারপাড় ইউপির ঠনারপাড় ফরায়েজি বাড়ীর ছাড়া উদ্দিনের ছেলে অটোচাকল নুর হোসেন (২২) ওই শিশুকে ফুসলিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ধর্ষক নুর হোসেন পালিয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীর তথ্যের ভিত্তিতে স্থানীয় লোকজন ধর্ষক নুর হোসেনকে আটক করে থানায় খবর দিলে পুলিশ গ্রেফতার করে। ওই শিক্ষার্থী লেমুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী । এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদি হয়ে সেনবাগ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং ৬, তারিখ ৮ মার্চ ১৮ইং।

এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল ভিকটিম নিজ বাড়ি থেকে স্কুলে যাবার পথে একই এলাকার ছালা উদ্দিনের ছেলে আটো চালক নুর হোসেন (২২)তাকে ফুসলিয়ে তার বাড়ীতে নিয়ে ভিকটিমকে জোর করে ধর্ষণ করে। এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে লম্পট পালিয়ে য়ায়। স্কুলছাত্রী পরে বাড়ীতে গিয়ে তার মাকে বিষয়টি জানায়। তার মা বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান আবদুর রহমান কে অবগত করলে, দ্রুত স্থানীয় গ্রাম পুলিশ মোঃ হানিফকে ঘটনা স্থলে প্রেরণ করেন এবং উপস্থিত স্থানীয়দের সহয়তায় ধর্ষককে ঘেরাও করে থানায় খবর দেয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ধর্ষক কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। ভিকটিম কে উদ্বার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোঃ হারুন আর রশিদ চৌধুরী জানায়, এঘটনায় ভিটটিমের মা হালিমা বেগম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং-৬ । ধর্ষক নুর হোসেন কে বৃহস্পতিবার দুপুরে নোয়াখালী বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.