প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি- প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান
প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি- প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান

পূর্ব গৌতায় মানবিক বিপর্যয় : ইরান ও তুরস্কের প্রেসিডেন্টের টেলিফোনে যে আলোচনা হলো

নয়া দিগন্ত অনলাইন

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, সিরিয়ার পূর্ব গৌতার বেসামরিক জনগণকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে তেহরান ও আঙ্কারার গুরুদায়িত্ব রয়েছে। তিনি গৌতায় মানবিক বিপর্যয় ঠেকাতে প্রচেষ্টা চালানোর জন্য সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

হাসান রুহানি বুধবার সন্ধ্যায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে এ আহ্বান জানান।

তিনি তুর্কি প্রেসিডেন্টকে বলেন, বর্তমান স্পর্শকাতর মুহূর্তে সিরিয়ার দু’টি মুসলিম প্রতিবেশী দেশ হিসেবে ইরান ও তুরস্ককে পূর্ব গৌতার সম্ভাব্য বিপর্যয় রোধে সাহায্য করতে এবং সেখানে যাতে টেকসই যুদ্ধবিরতি কার্যকর করা যায় সে চেষ্টা চালাতে হবে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, পূর্ব গৌতা থেকে সন্ত্রাসীদের পক্ষ হতে রাজধানী দামেস্ককে লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ বন্ধ করার পাশাপাশি সেখানে আটকে পড়া বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপদে বের হয়ে আসার সুযোগ করে দিতে হবে। এ কাজে তুরস্ককে তার প্রভাব কাজে লাগানোর আহ্বান জানান প্রেসিডেন্ট রুহানি।

টেলিফোন সংলাপে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান সিরিয়ার পূর্ব গৌতা এলাকার পরিস্থিতিকে অত্যন্ত দুঃখজনক আখ্যায়িত করে বলেন, এই পরিস্থিতি থেকে সেখানকার সাধারণ মানুষকে রক্ষা করার জন্য ইরান ও তুরস্ককে প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

তিনি পূর্ব গৌতা থেকে দামেস্ককে লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ বন্ধ করার প্রয়োজনীয়তা স্বীকার করে বলেন, যতদ্রুত সম্ভব সেখানে যুদ্ধবিরতি কার্যকর করতে হবে এবং এজন্য তেহরান ও আঙ্কারা মধ্যে সহযোগিতা প্রয়োজন।

কুর্দি গেরিলাদের মানবিজে যেতে দেবেন না : আমেরিকাকে তুরস্ক
সিরিয়ার কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠী ওয়াইপিজি’র সদস্যদেরকে আফরিন থেকে মানবিজ শহরে না যেতে দেয়ার জন্য আমেরিকার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তুরস্ক। গত ২০ জানুয়ারি থেকে আফরিন শহরে কুর্দি গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে তুর্কি সেনারা।

বুধবার রাজধানী আংকারায় তুর্কি প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, তার দেশ আশা করে কুর্দি গেরিলাদেরকে আফরিন শহর থেকে মানবিজ শহরে সরে যাওয়ার সুযোগ দেবে না আমেরিকা। আফরিন থেকে ৩০ কিলোমিটার পশ্চিমে ইউফ্রেটিস নদীর কাছে মানবিজ শহরের অবস্থান।

ইব্রাহিম কালিন বলেন, ‘কুর্দি গেরিলারা যাতে মানবিজ শহরে যেতে না পারে সেজন্য তুর্কি কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে এবং এটা হচ্ছে তুরস্কের সাধারণ অধিকার। আমেরিকা কী করবে সেটা আলাদা প্রশ্ন।’

গতকালই তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান জানিয়েছেন, তার দেশের সেনাদের অভিযানের মাধ্যমে এ পর্যন্ত দু হাজার ৯৬০ জন কুর্দি গেরিলাকে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে। গেরিলাদের হত্যা কিংবা আত্মসমর্পণ বোঝাতে তুরস্ক সরকার সাধারণত ‘নিষ্ক্রিয়’ শব্দটি ব্যবহার করে থাকে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.